শিরোনাম :
মারা গেছেন প্রখ্যাত গজলশিল্পী পঙ্কজ উদাস ৩০ হাজার টাকায় রোহিঙ্গা হয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশি অনিয়ম দূর্নীতির আখড়া কক্সবাজার পল্লী বিদ্যূৎ অফিস ক্যাম্প ছেড়ে মিয়ানমারে গিয়ে ফিরে আসা অস্ত্রসহ আটক ২২ রোহিঙ্গা ৩ দিনের রিমান্ডে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নতুন অধিনায়ক শান্ত দূনীর্তির দ্বায়ে শাস্তি মূলক বদলী হওয়া রামু জনস্বাস্থ্য অফিসের কর্মচারী ইফতেখার আবারো বছর না পেরুতেই রামুতে বদলী শিক্ষা প্রতিষ্টানে গাইড বই কিনতে বাধ্য করা হচ্ছে শিক্ষার্থীদের রামু কলেজে ফান্ড লুটপাট, তদন্তে দুদক অংকুর দাশ স্মৃতি সংসদের উদ্যােগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরন মহিলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে শেখ রাসেল ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট সম্পন্ন

ফিরতে রাজি না হওয়ায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন স্থগিতঃ ক্ষোব্ধ কক্সবাজারের মানুষ

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২২, ২০১৯
  • 355 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

মাহাবুবুর রহমান,
সেচ্চায় কোন রোহিঙ্গা স্বদেশে ফিরতে রাজি না হওয়ায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন আপাতত স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম। তবে সাক্ষাৎকার গ্রহণ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি।বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) বেলা ১ টার দিকে টেকনাফের শালবাগান রোহিঙ্গা শিবিরে সাক্ষ্যৎকার দেওয়া রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলোচনার পর এ কথা জানান কমিশনার।
মোহাম্মদ আবুল কালাম বলেন, মিয়ানমার ৩ হাজার ৫৪০ জন রোহিঙ্গার যে তালিকা পাঠিয়েছে সেই সব রোহিঙ্গার সাক্ষ্যৎকার নেওয়া অব্যাহত থাকবে। রোহিঙ্গাদের সাড়া না পাওয়ায় প্রত্যাবাসনের দিনক্ষণ সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না। তবে আজ বিকাল ৫টা পর্যন্ত তাদের বোঝানোর চেষ্টা করা হবে।
এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, মিয়ানমার, চীন ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর প্রতিনিধিরা।
এর আগে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনকে ঘিরে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে জাদিমোড়া ক্যাম্প থেকে বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়ক পর্যন্ত নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। কিন্তু রোহিঙ্গাদের শর্তের মুখে আবারও পিছিয়ে গেলো প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া।
এদিকে ২২ আগষ্ট বহুল প্রত্যাসিত রোহিঙ্গা প্রত্যবাসনের জন্য উৎসাহ উদ্দিপনা নিয়ে অপেক্ষা করছিল পুরু কক্সবাজারের মানুষ সহ দেশ বিদেশের অসংখ্য মানুষ। তাদের সবাইকে হতাশ করে দ্বিতীয় বারের মত রোহিঙ্গা প্রত্যবাসান স্থগিত হওয়ায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছে কক্সবাজারের স্থানীয়রা।
এ সময় নিজে পেশাগত কাজে বৃহস্পতিবার ভোর থেকে ঘুমধুম ট্রানজিট ঘাটে অপেক্ষা করছিলেন কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের। কিন্তু দিন শেষে কোন রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন,রোহিঙ্গাদের যে দাবী সেটা পূরন করা বাংলাদেশের পক্ষে সম্ভব না। এটা দীর্ঘ আলোচনার বিষয় এবং আর্ন্তজাতিক বিষয়। নাগরিকত্ব বিষয়টি তারা এখানে থেকে কিভাবে সমাধান করবে ? তাহলে তারা আদৌ বাংলাদেশ ছাড়বে না। তাহলে আমাদের ভবিষ্যত কি হবে? আমরা কোন পথে যাচ্ছি ? এসব প্রশ্নের উত্তর কে দেবে।
উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী বলেণ,আমার মতে এটি সম্পূর্ন একটি নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে। রোহিঙ্গাদের এভাবে ফেরত নেওয়া যাবে না সেটা আগে থেকেই সবাই জানে। খুব সম্ভবত আমরা এখন মায়ানমারকেই বাচিঁয়ে দিতে নাটকের কর্মী হিসাবে কাজ করছি। এখন দ্বিতীয় বার প্রত্যাবাসনের জন্য প্রস্তুতি নিয়েও রোহিঙ্গাদের ফেরাতে না পারার দায়ে উল্টো মায়ানমার আমাদের বিরুদ্ধে আর্ন্তজাতিক আদালতে মামলা করে কিনা সেটা এখন দেখার বিষয়। আমি শুরু থেকে বলেছিলাম তালিকায় থাকা রোহিঙ্গাদের পুলিশ হেফাজতে নিয়ে বাধ্যতা মূলক ভাবে তাদের প্রত্যবাসন করলেই সব কিছু সফল হবে।
টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আলম বলেন,আদর করে কোন দিন রোহিঙ্গা প্রত্যবাসন করা সম্ভব না। আর আমাদের কাছে প্রমান আছে বেশ কিছু এনজিও রোহিঙ্গাদের না ফেরার জন্য ইন্দন দিচ্ছে। তাদের কর্মীরা রোহিঙ্গাদের ভয় লাগাচ্ছে সেখানে গেলে মারা যাবে। এছাড়া বাংলাদেশে যেভাবে রোহিঙ্গাদের রাখা হচ্ছে এটা দুনিয়ার কোথাও স্বরনার্থীদের রাখা হয়না। রোহিঙ্গাদের ভাল চাকরী,বিপুল রেশন,ভাল খাবার,ভাল বাড়ি সব কিছু ফ্রিতে পেলে কেন তারা নিজ দেশে ফেরত যাবে।আমার মতে খুব বেশি দেরী নেই কক্সবাজারের মানুষ ফিলিস্তিন বা কাশ্মিরে পরিণত হতে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT