শিরোনাম :
কক্সবাজারে বিমান উড্ডয়নের সময় ধাক্কাতে ২ টি গরুর মৃত্যু : বড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা চকরিয়ায় ব্যালট পেপার বিনষ্টের অভিযোগে মামলা: প্রিজাইডিং অফিসার কারাগারে খুরুশকুল এলাকায় অভিযানে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-আটক ১ কস্তুরাঘাট সংলগ্ন বাকঁখালী নদী এখন প্রভাবশালীর ব্যাক্তিগত জমি বদরখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নৌকা প্রার্থীর ভাগ্নেকে পিটিয়ে হত্যা ঈদগাঁওতে শীতমৌসুমে গরম কাপড় কিনতে ক্রেতাদের ভীড় চকরিয়ায় ১০ ইউপিতে আ‘লীগ ৫ স্বতন্ত্র ৫ মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যাচেষ্টা, মহেশখালীর মেয়রসহ ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা পিএমখালীতে ইয়াবা সহ আটক হোসেনের সিন্ডিকেট এখনো অধরা নাফ নদ থেকে ১ কেজি আইসসহ পাচারকারী আটক

হাজী পাড়ার প্রতারক, রোহিঙ্গা মনজুর আলমের ভুয়া খতিয়ান বাতিল : এলাকাবাসীর মাঝে আনন্দ

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, অক্টোবর ১৫, ২০২১
  • 512 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
সদর উপজেলার ঝিলংজা দক্ষিন হাজী পাড়ার চিহ্নিত প্রতারক ভুমিদস্যু ও প্রকৃত রোহিঙ্গা মনজুর আলম কর্তৃক জালিয়াতির মাধ্যমে করা বি.এস ২০৯৫ খতিয়ান আদালক কর্তৃত বাতিল হওয়ায় খুশির বন্যা বয়ছে পুরু এলাকার মানুষের মাঝে। দক্ষিন হাজী পাড়া এলাকার বাসিন্দাদের দেওয়া তথ্য মতে হাজী পাড়ায় এলাকার বাসিন্দা সুলতান আহামদের ছেলে মনজুর এলাকার একজন সূচতুর এবং জঘন্য প্রতারক প্রকৃতির লোক। তিনি পুরু এলাকার মানুষকে খাস জমি বন্দোবস্তি করে দেওয়ার কথা বলে বিভিন্ন কাগজে স্বাক্ষর নেয়। পরে দীর্ঘদিন পরে দেখা যায় পুরু এলাকার মানুষের সমস্ত সম্পত্তি ১ একর ৩০ শতক জমি নিয়ে মনজুর আলম একটি খতিয়ান সৃজন করে যার নাম্বার ঝিলংজা মৌজা বি এস ২০৯৫। সেই খতিয়ান মতে তিনি প্রতারনার মাধ্যমে মোহাম্মদ আলী নামের এক ব্যাক্তিকে ৩ শতক জমি বিক্রি করে যার রেজিষ্ট্রি নাম্বার ৫৬০,ক্রমিক নাম্বার ৫৬১ তারিখ ০৪/০৩/২০১৯ ইং। আর এই জমি দিয়ে ১৪ লাখ টাকার বেশি আত্মসাৎ করে মনজুর আলম। পরে বিষয়টি এলাকাবাসীর পক্ষে আলমাস খাতুন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এমকি এম আর মামলা করে যার নাম্বার ১৩৮৩/১৯ উক্ত মামলার বিরুদ্ধে জেলা জজ আদালতে ক্রিমিনাল রিভিশন মামলা করে যার নাম্বার ১০২/২০২০। পরবর্তীতে জেলা জজ আদালতের নির্দেশে সদর উপজেলা ভুমি অফিসের কাননগো,সার্ভেয়ার,ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তারা দীর্ঘ যাচাই বাছাই করে প্রতারক মনজুর আলমের নামে ২০৯৫ খতিয়ান সঠিক নয় বরং উক্ত খতিয়ান নুরুল ইসলাম পিতা মৃত হাফেজ তোফাজ্জেল হোসেন সাং ঝিলংজার নামে আছে। যা সদর ভুমি অফিস থেকে ৬ অক্টোবর প্রতিবেদন প্রদান করে। এতে দক্ষিন হাজী পাড়া এলাকার মানুষের মাঝে আনন্দের বন্যা হয়ে যাচ্ছে। দীর্ঘ দিন পর হলেও একজন রোহিঙ্গা এবং শীর্ষ প্রতারকের হাত থেকে মুক্ত হতে পেরে মানুষের মাঝে সস্তি ফিরেছে। এলাকাবাসীর দাবী মনজুর আলম একজন প্রকৃত রোহিঙ্গা যে ১৯৮০ সালের পরে বার্মা থেকে বাংলাদেশে এসে মহেশখালীতে বসাবাস করে। পরে ১৯৯৮ সালের দিকে স্বপরিবারে হাজী পাড়ায় এসে বসাবাস শুরু করে। এর মধ্যে এক সময় অন্যের বাড়িতে কামলা খাটা মনজুর আলম মহেশখালী ১০/১২ একর জমি কলাতলীতে অসংখ্য ফ্ল্যাট বাড়ির মালিক বনে গেছে বার্মাই মনুজর তাই তার সমস্ত জাতীয় পরিচয় পত্র সহ সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার দাবী জানান এলাকাবাসী।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT