সাফ ফুটবল : শ্রীলংকাকে হারিয়ে বাংলাদেশের শুভ সূচনা

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, অক্টোবর ২, ২০২১
  • 57 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

জয়টা প্রত্যাশিতই ছিল। কেননা প্রতিপক্ষ যে বাংলাদেশের চেয়ে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ১৪ ধাপ পিছিয়ে। তাছাড়া ১৬ বারের মুখোমুখি লড়াইয়েও বাংলাদেশ ১০-৪ (২ ড্র) ব্যবধানে এগিয়ে। সর্বশেষ সাক্ষাতেও (২০২০ সালের ১৯ জানুয়ারি) ৩-০ গোলে জিতেছিল লাল-সবুজ বাহিনী। তবে ‘দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপ’ খ্যাত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে দুদলের আগের দুবারের মোকাবেলায় জয়ের হিসেবে ওই প্রতিপক্ষকে পেছনে ফেলতে পারেনি বাংলাদেশ (১-১)। তবে শুক্রবার রাতে ম্যাচ শেষে সেই হিসেবের আপডেটে ঠিকই আবারও এগিয়ে গেল বাংলাদেশ। কেননা সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ত্রয়োদশ আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশ যে প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কাকে ১-০ গোলে হারিয়েছে। মালদ্বীপের মালের ন্যাশনাল ফুটবল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এই খেলায় জিততে বাংলাদেশকে অবশ্য পেনাল্টির আশ্রয় নিতে হয়েছে (গোলদাতা ডিফেন্ডার তপু বর্মণ, ৫৬ মিনিটে; ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়েরও পুরস্কার লাভ করেন তিনি) এবং লাল কার্ড পাবার কারণে একজন কম ফুটবলার নিয়ে খেলা শ্রীলঙ্কাকে চেপে ধরেও একাধিক গোল করতে পারেনি ২০০৩ আসরের চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। কিন্তু বাংলাদেশী ফুটবলপ্রেমীদের তাতে বয়েই গেছে! দীর্ঘ আট ম্যাচ পর জয় এবং ৫ ম্যাচ পর হার এড়ানো গেছে- এটাই তো অনেক বড় ব্যাপার, তাই না?
খেলা শেষে দর্শকদের অভিবাদন গ্রহণ করে বাংলাদেশ দল। এই ম্যাচে কোচ হিসেবে অভিষেক হয় স্প্যানিশ অস্কার ব্রুজোনের, যিনি মাত্র কদিন আগেও বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবল ক্লাব বসুন্ধরা কিংসের কোচ ছিলেন। জ্বর থাকায় শুক্রবার খেলতে পারেননি বাংলাদেশের মিডফিল্ডার সোহেল রানা এবং ডিফেন্ডার রেজাউল করিম। তবে তাতে জয় কুড়িয়ে নিতে অসুবিধে হয়নি বাংলাদেশ দলের।শুক্রবার খেলার প্রথম ৫ মিনিট শ্রীলঙ্কা আধিপত্য বিস্তার করে খেলে। তাদের স্টাইল ছিল লম্বা পাসে খেলা। তারপরের পালা বাংলাদেশের। পজিশনাল ফুটবল খেলার চেষ্টা করে তারা। বল নিয়ন্ত্রণে রেখে আক্রমণে যাওয়ার চেষ্টা। কয়েকবার আক্রমণ করে তারা। খেলে দৃষ্টিনন্দন খেলা। কিন্তু ডি-বক্সের ভেতরে গিয়ে ফরোয়ার্ডর খেই হারিয়ে ফেলেন বারবার।
৫৫ মিনিটে পেনাল্টি পায় বাংলাদেশ। বক্সের ভেতরে আলতো করে বল ফেলেন বিপলু। উদ্দেশ্য সতীর্থ ইব্রাহিমকে পাস দেয়া। তার কাছে বল যাওয়ার আগেই বলটি নিজের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার চেষ্টা করেন লঙ্কান ডিফেন্ডার ডাকসন পুসলাস। কিন্তু বলটি তার হাতে লেগে যায়। ফলে রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজান। এবং তাকে হলুদ কার্ড দেখান। আগেই একটি হলুদ কার্ড থাকায় লাল কার্ড পেয়ে মাঠ থেকে বহিষ্কৃত হন ডাকসন। ৫৬ মিনিটে ঠান্ডা মাথায় স্পটকিক থেকে গোল করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেন ‘বাংলার রামোস’ খ্যাত ডিফেন্ডার তপু বর্মণ (১-০)। উল্লাসে মেতে ওঠে গ্যালারিতে উপস্থিত কয়েক হাজার বাংলাদেশী।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT