শিরোনাম :
উখিয়ার রোহিঙ্গা ছৈয়দ নুরের এনআইডি বাতিল করতে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে কলাতলীতে হোটেল দখলে নিতে তৎপর প্রতারক চক্র অবাধ তথ্য প্রবাহ দূর্নীতি প্রতিরোধে সহায়ক ভুমিকা রাখতে পারে : সুজনের আলোচনা সভায় বক্তারা ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই নারী শিক্ষক ২০ হাজার ইয়াবা সহ আটক ১ জেলার বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসায় কর্মরত রোহিঙ্গাদের সরকারি সুযোগ সুবিধা বাতিলের দাবীতে আবেদন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীর হাতে অপহৃত ৩ বাংলাদেশীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব নাফ নদীতে অজ্ঞাত শিশুর লাশ উদ্ধার ১০ হাজার ইয়াবা সহ আটক ২ আইনজীবি হলেন স্বামী স্ত্রী জসিম উদ্দিন ও মর্জিনা আক্তার

শুক্রবার ঈদুল ফিতর : মসজিদেই হবে ঈদের জামাত

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, মে ১২, ২০২১
  • 160 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে
????????????????????????????????????

মাহাবুবুর রহমান.
আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল শুক্র বার পবিত্র ঈদুল ফিতর। মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব। তবে পৃথীবিতে করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবের কারনে ২০২০ সালও ঈদুল ফিতর এবং ঈদুল আজহা উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্যে পালন করতে পারেনি সারা পৃথীবির মত বাংলাদেশে মুসলামানরা। আর এখনো করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাব থাকার কারনে এবারও উৎসাহ উদ্দিপনার ছাড়াই পালন হবে ঈদুল ফিতর। এদিকে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসনের বৈঠকে গত বছরের মত এবারও ঈদগাহে ঈদের জামাতের বদলে মসজিদে ঈদের জামায়াত অনুষ্টিত হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে একাধিক জামাত করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের জামাত অনুষ্টিত হবে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। এদিকে জেলা পর্যটন কেন্দ্রগুলো বন্ধ থাকায় এবং করোনা সংক্রামন বাড়ার ঝুকির কারনে ঘর থেকে কম বের হওয়ার আহবান জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।
১২ মে বেলা সাড়ে ১১ টায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে ঈদুল ফিতরের জামাত সহ অন্যান্য বিষয়ে আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এতে সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ। এতে সিদ্ধান্ত হয় যে,চাঁদ দেখা সাপেক্ষে বৃহস্পতিবার অথবা শুক্রবার দেশে পালিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। দেশে করোনা সংক্রামন বাড়তি দিকে থাকার কারনে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ঈদগাহে ঈদের জামাত অনুষ্টিত হবে না। এর বদলে গত বছরের মত সংশ্লিষ্ট এলাকার মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্টিত হবে। সকাল ৮ থেকে কয়েকটি জামাত করা যাবে। প্রয়োজন অনুসারে স্থানীয় মসজিদ কমিটি গুলো সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে। তবে এতে মুসল্লিদের ঈদের জামাতে আসার সময় জায়নামাজ সাথে নিয়ে আসতে এবং বাসা থেকে অজু করে আসতে বলে হয়েছে। এছাড়া মসজিদে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে সম্পূর্ন স্বাস্থ্যবিধি নামাজ আদায় করতে হবে। উক্ত সভায় জেলা প্রশাসক ছাড়াও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকগন,কক্সবাজার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ পরিচালক ফাহমিদা বেগম,ইমাম সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ছিদ্দিকি সহ বিভিন্ন মসজিদের ইমামগন উপস্থিত ছিলেন। কক্সবাজার ইমাম সমিতির সভাপতি মৌলানা সিরাজুল ইসলাম ছিদ্দিকি বলেন,বৈঠকে ঈদ জামাত নিয়ে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ন সিদ্ধান্ত হয়েছে। এতে মাঠের বদলে মসজিদে নামাজ আদায় সহ সবাইকে বিনা প্রয়োজনে বাইরে না যাওয়ার জন্য আহবান করা হয়েছে। কক্সবাজার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ পরিচালক ফাহমিদা বেগম বলেন,ঈদ হচ্ছে আমাদের জন্য একটি পবিত্র এবং উৎসবের দিন তবে পৃথীবি ব্যাপী করোনা সংক্রামনের হার দিন দিন বাড়ায় আমাদের সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। তাই ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবছরেও ঈদের জামাত মসজিদে পড়তে হবে। এ সময় তিনি শিশুদের খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য পরামর্শ দেন। জেলা প্রশাসক মো: মামুনুর রশীদ বলেন,পার্শবর্তী অনেক দেশে করোনা ভয়াল থাবা কি পরিমান জানমালের ক্ষতি করছে তা আমরা দেখতে পাচ্ছি তাই আমাদের সবার নিরাপত্তার স্বার্থে সবাইকে খুব বেশি সচেতন থাকতে হবে। পর্যটন কেন্দ্রগুলো বন্ধ আছে তবুও অনেকে ঘর থেকে বের হয়ে অযাচিক অনেক সময় বেশি পরিমান জনসমাগম করতে পারে সেটা না করার জন্য তিনি পরামর্শদেন। তিনি বলেন জীবন থাকলে ভবিষ্যতে আরো ঈদ উদযাপন করতে পারবো। যতি পরিবার থেকে কেউ হারিয়ে যায় সেই ব্যাথা কেউ ভুলতে পারবেনা তাই সবাইকে সচেতন থাকার আহবান জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT