শিরোনাম :
দেশের বিভিন্ন স্থানে দূর্গা পূজায় হামলা প্রতীমা ভাংচুরের প্রতিবাদে কক্সবাজারে মানববন্ধন বিদেশে যেতে চায় মুহিবুল্লাহ‘র পরিবার পাহাড়তলীতে বেলালের গ্যারেজে আড়ালে চলছে ইয়াবা ব্যবসা কাপ্তাইয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীকে গুলি করে হত্যা মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা আর থাকছে না সৌদিতে বিনা শুল্কে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানীর নির্দেশ দিলেন অতিরিক্ত বানিজ্য সচিব পাহাড়তলীতে গ্যারেজের আড়ালে চলছে ইয়াবা ব্যবসা টেকনাফ সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি ইয়াবা নিয়ে সহযোগি সহ ঢাকায় আটক পাঁচ কেজি আইসসহ টেকনাফ সিন্ডিকেট প্রধান ঢাকায় আটক পেকুয়ায় ত্রিভূজ প্রেমের বলি দুই প্রেমিক-প্রেমিকা

শহরে মটর সাইকেল চুরির তালিকা দীর্ঘ : বন্ধে নেই কার্যকর পদক্ষেপ

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৩, ২০২০
  • 696 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে
?

মাহাবুবুর রহমান.
কক্সবাজার শহরের কালুর দোকান এলাকার বাসিন্দা তরুন আইনজীবি মোঃ সায়েমের বাসার নীচ তলা থেকে নিজের ব্যবহৃত মটরসাইকেলটি চুরি হয়ে গেছে প্রায় ৩ মাস আগে। সম্ভাব্য সব রকম টেস্টা করে এখন আর মটর সাইকেল ফিরে পাওয়ার আশা করেননা তিনি। ২২ জুলাই দিবাগত রাতে শহরের বাহারছড়াস্থ নিজ বাসা থেকে মটর সাইকেল চুরি হয়েছে জেলা জাতীয় পার্টি
র সাধারণ সম্সপাদক মুফিজুর রহমানের। সদর উপজেলা ভুমি সহকারী তহসীলদার মোহাম্মদ জাহেদ জানান, কয়েক মাস আগে তার উখিয়ার রাজাপালংয়ের বাসা থেকে নিজের ব্যবহৃত পালসার মটর সাইকেলটি নিয়ে গেছে তবে সিসিটিভিতে চোর সনাক্ত করা গেলে এখনো কিছুই করতে পারেনি পুলিশ, তাই নিজে সরকারি কর্মকর্তা হয়ে হতাশ হয়ে আর গাড়ি ফিরে পাওয়ার আশা করছেননা। এই তহসিলদার দাবী করেন সিসিটিভিতে সনাক্ত হওয়া ব্যাক্তি রাজাপালং ইউনিয়নের মৌলবীপাড়া গ্রামের নেজাম। সে স্থানীয় মোঃ আইয়ুবের ছেলে।
এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে একই ইউনিয়নের হাজীর পাড়া গ্রামের মুফিজ সে সম্প্রতি মটর সাইকেল চুরির মামলায় জেলা খেটে এসেছে এবং বটতলী গ্রামের বকতারের ছেলে রুবেল এলাকার নামকরা মটর সাইকেল চোর। এছাড়া গত বছর কোট বাজার কামাল স্টোরের একটি মটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়েছিল এই চক্রের কাছ থেকে। এদিকে শহরের তারাবনিয়ারছড়ার উকিলপাড়ার ব্যবসায়ি বেলাল উদ্দিন তার ব্যবহৃত পরপর ২ টি মটর সাইকেল চুরি করে নিয়ে গেছে একই বাসা থেকে।
তিনি বলেন, তারা বলেছে চোর সনাক্ত করে দিতে হবে তখন তারা কিছু করতে পারবে। পরে আর থানায় ধারে কাছে যাননি তিনি। এছাড়া গোলদিঘির পাড় এলাকায় থাকা ঔষধ কোম্পানীর কর্মকর্তা উত্তমের মটর সাইকেলটিও বাসার নীচ থেকে চুরি হয়েছে প্রায় ৫ মাস আগে। এছাড়া গত ২ দিন অন্তত ১০ জন তাদের মটর সাইকেল চুরি হয়েছে বলে জানান তবে কেউ ফেরত পায়নি তাদের মটর সাইকেল।
এদিকে বিভিন্ন সূত্রে খবর নিয়ে জানা গেছে, কক্সবাজার শহরে রয়েছে বেশ কয়েকটি শক্তিশালী মটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেট, তাদের মধ্যে শহরের লাইট হাউজ, কলাতলী, সমিতি পাড়া, নুর পাড়া সহ অসংখ্য এলাকার ছেলে রয়েছে।
অনুসন্ধানে জানা গেছে মোহাজের পাড়ায় বসাবাসকারী এক বিএনপি নেতার ছেলে, কলাতলীর এক নারী নেত্রীর ছেলে মটর সাইকেল চোর চক্রের সাথে জড়িত। এছাড়া অনেক মটর সাইকেল সমিতি পাড়া হয়ে রাতের আধারে বোটে করে মহেশখালী পার হয়ে যায় আবার সেখান থেকে ভেতরের রোড দিয়ে সাকতানিয়া, লোহাগাড়া, চট্টগ্রামে চলে যায় বলে জানা গেছে। তবে চোরের সাথে প্রাথমিক পর্যায়ে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন পার্স খুলে অন্য পার্স লাগিয়ে দেওয়ার কাজ করে শহরের বিভিন্ন মটর সাইকেল মেকানিক দোকান গুলো। এছাড়া খুরুশকুল ব্রীজ হয়ে ঈদগাও এলাকা দিয়ে চুরি হওয়া মটর সাইকেল শহরের বাইরে যায় বলে জানা গেছে।
এদিকে ২০ জুলাই জজ কোর্ট এলাকা থেকে কক্সবাজারের সিনিয়র সাংবাদিক মাহাবুবুর রহমানের মটর সাইকেল চুরি হওয়াকে দুঃখজনক জানিয়ে জেলা আইনজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদক এড. জিয়া উদ্দিন আহমদ বলেন, কোর্ট এলাকায় বেশি করে সিসিডিভি ক্যামেরা লাগানোর জন্য আমরা সব সময় বলে আসছিলাম। আজকে সেগুলো লাগানো হলে সাংবাদিক মাহাবুবুর রহমানের গাড়ীটি সহজে পাওয়া যেত। এছাড়া পুলিশ সুপার অফিসের রাস্তা এবং আশপাশের অন্যান্য সিসিডিভি দেখে দ্রুত চুরি যাওয়া মটর সাইকেলটি উদ্ধারের দাবী জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT