লামা ফাঁসিয়াখালী ইউপি সচিবের ক্ষমতার জোর কোথায় ?

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, জানুয়ারী ৮, ২০২০
  • 78 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া :
বান্দরবানের লামা উপজেলার ৩নং ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মো. শহীদ হোসাইনের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় জনগনের অভিযোগের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম তাকে গত ৫ জানুয়ারী তাকে বান্দরবান সদর উপজেলার ৩ নং সদর ইউনিয়ন পরিষদে বদলী করেন।
গতকাল এলাকাবাসীর পক্ষে চকরিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের কাছে এক অভিযোগে দাবী করা হয়েছে, সচিব শহীদ হোসাইন গত ৮ বছর ধরে সচিব হিসেবে ৩নং ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদে কর্মরত থেকে অবৈধ পন্থায় পরিষদের নামে সরকারী ভাবে বরাদ্দ আসা টিআর-কাবিখা ও ভিজিডির চালসহ বিভিন্ন অনুদান তার বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত বগাইছড়ি রাজ্জাকিয়া এতিমখানা ও রাজ্জাকিয়া ফাউন্ডেশনসহ তার আত্মীয় স্বজনের কাছে স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে বরাদ্দ দিয়ে আসছেন। যা অতীতের বরাদ্দ প্রাপ্তির রেকর্ডপত্র যাচাই- বাচাই করা হলে এ অনিয়ম ও দূর্নীতির রহস্য উৎঘাটন সম্ভব বলে এলাকার সচেতন জনগন দাবী করেছেন। উল্লেখ্য যে, তার এক বড় মোহাম্মদ হোছাইন মামুন একই পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) নির্বাচিত হওয়ায় সচিব শহীদ হোসাইন অনিয়ম ও দূর্নীতিতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৫ জানুয়ারী তাকে জেলা প্রশাসক বদলীর করার পরও তিনি নতুন কর্মস্থলে যোগদান না করে এখনো স্ব এলাকায় বহাল তবিয়তে থাকায় এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভ ও অশান্তি বিরাজ করছে। এলাকাবাসী আরো অভিযোগ করেছেন, ওই সচিব নতুন কর্মস্থলে যোগদান না করে স্ব স্থানে বহাল থাকার জন্য নানা প্রকার তৎবির শুরু করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT