লবণ শিল্প বাঁচাতে মাঠ থেকে সরকারি ভাবে লবণ কিনতে হবেঃ জেলা বিএনপি

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, মার্চ ১, ২০২০
  • 53 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

কক্স৭১
মাঠ পর্যায় থেকে কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি লবণ কিনা,বিদেশ থেকে লবণ আমদানী বন্ধ,এবং যে সব কোম্পানী লবণ আমদানী করে তারা যেন পত্রিকায়জাত করে প্যাকেট লবণ বিক্রি করতে না পারে সেই ব্যবস্থা করার দাবী জানিয়েছে কক্সবাজার জেলা বিএনপি। ১ মার্চ দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবী করেন কক্সবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ শাহজাহান চৌধুরী। তিনি বলেন,লবণ কক্সবাজারের অর্থনীতির অন্যতম প্রধান চালিকা শক্তি হলেও এই শিল্পটিকে পরিকল্পিতভাবে ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে এই শিল্প নিয়ে প্রতিনিয়ত ষড়যন্ত্র চলছে। ষড়যন্ত্র থেকে উত্তরণ ও ষড়যন্ত্রকারিদের মুখোশ উম্মোচন করতে হবে।
বক্তব্যে তিনি লবণ শিল্প বাঁচাতে তিনটি করণীয়ের কথা জানানো হয়।
০১. চাহিদা মোতাবেক শিল্প লবণ আমদানি হোক। কিন্তু চাহিদার চেয়ে অতিরিক্ত শিল্প লবণ আমদানি অবশ্যই বন্ধ করতে হবে।
০২. যে সব কোম্পানি শিল্প লবণ আমদানি করে তারা যেন প্রক্রিয়াজাত করে খাদ্য লবণ বাজারজাত করতে না পারে, সে ব্যাপারে সরকারকে কঠোর অবস্থান নিতে হবে।
০৩. সরকারি উদ্যোগে মাঠ পর্যায়ে উৎপাদিত লবণের ন্যায্যমূল্য প্রতিকেজি ১৫ টাকা নির্ধারণ করতে হবে, নয়তো চাষীদের কাছ থেকে ন্যায্যমূল্য প্রতিকেজি ১৫ টাকা দামে সরাসরি লবণ কিনতে হবে।
বিএনপি নেতারা আক্ষেপ করে বলেন, একদিকে মাঠে পড়ে আছে লাখ লাখ মেট্রিক টন লবণ, অন্যদিকে শিল্প লবণের নামে বিদেশ থেকে লবণ আমদানি করে সেই লবণকে খাদ্য লবণে প্রক্রিয়াজাত করছে আমদানিকারক নামধারি কতিপয় রক্তচোষা! আর মাথার ঘাম পায়ে যে সকল চাষীরা মাঠে লবণ উৎপাদন করছেন সেই সকল চাষীরা উৎপাদিত লবণের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে মাঠ ছেড়ে পালাতে বাধ্য হচ্ছেন। যেহেতু তারা ঋণ কিংবা দাদন নিয়ে মাঠে নেমেছিল, সেহেতু সেই ঋণ শোধ করতে না পেরে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। যারাও মাঠে আছে তারাও যে কোন সময় মাঠ ছেড়ে পালানোর চেষ্টায় আছে।
শাহজাহান চৌধুরী বলেন, মেগা প্রকল্প মানে কি বিভিন্ন রঙের রঙ? নাকি অন্যকিছু?
পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে দাবী করে হোটেল মোটেল জোনের অনেক প্লট বাতিল করেছে সরকার। অন্যদিকে মাতারবাড়িতে পরিবেশ বিধ্বংসী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করছে। এ কেমন কর্মকাণ্ড?
উন্নয়ন প্রকল্পের নামে সরকারই দেশের পরিবেশ ধ্বংস করছে। নেতাদের হাতে একে একে সব তুলে দিচ্ছে। ঢাকা, নারায়ণগঞ্জকেন্দ্রিক একটি সিন্ডিকেটকে প্রশ্রয় দেয়ায় লবণশিল্প ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে।
সরকারের বিরুদ্ধে সাবেক সাংসদ শাহজাহান চৌধুরীর অভিযোগ, দেশকে পুলিশী রাষ্ট্র বানিয়ে ফেলা হয়েছে। দেশ হবে শুধু শেখ বংশের। অন্য কারো কথা বলার সুযোগ থাকবে না।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন -জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি ও কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এটিএম নুরুল বশর চৌধুরী, সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান চৌধুরী খোকন মিয়া।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন -জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক জামিল ইব্রাহিম চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক ইউসুফ বদরী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি অধ্যাপক আজিজুর রহমান, সদর উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আব্দুল মাবুদ, মহেশখালী উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক, কেন্দ্রীয় যুবদলের সদস্য এম. মোক্তার আহমদ, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আমীর আলী, ঈদগাঁও সাংগঠনিক উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ শফিউল আলম, জেলা বিএনপি’র ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রাশেদুল হক রাসেল, জেলা ছাত্রদলের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ সরওয়ার রোমন, সাবেক ছাত্রনেতা আবছার কামাল, মহেশখালী বিএনপি নেতা আকতার হোসাইন।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT