শিরোনাম :

র‌্যাবের সাথে বন্ধুকযুদ্ধে কুখ্যাত রোহিঙ্গা ডাকাত জকিরসহ ৩ জন নিহত

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০২১
  • 153 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

কক্স৭১
নবগঠিত র‌্যাব-১৫ ব্যাটালিয়ন প্রতিষ্ঠালগ্ন হতেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। কক্সবাজার জেলাকে মাদকের ভয়াল থাবার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করে দিন-রাত সাফল্যের সাথে অভিযান পরিচালনা করছে। মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানের পাশাপাশি নবগঠিত র‌্যাব-১৫ প্রতিষ্ঠালগ্ন হতে সাফল্যের সহিত বিভিন্ন অভিযান পরিচালনা করে জনসাধারণের আস্থা অর্জণে সক্ষম হয়েছে। কক্সবাজার জেলার টেকনাফ এলাকার জকির ডাকাত গ্রæপ এক মূর্তিমান আতঙ্কের নাম। এই ডাকাত গ্রæপকে ধরার জন্য র‌্যাব-১৫ দীর্ঘদিন যাবৎ কঠোর পরিশ্রম করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ২৩ ফেব্রæয়ারি ২০২১ ইং তারিখ অপরাহ্নে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন ২৬ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশে গভীর পাহাড়ে অভিযান পরিচালনা করলে জকির ডাকাতের আস্তানার সন্ধান পায়। সন্ধান পাওয়া মাত্র র‌্যাব ফোর্সেস উক্ত আস্তানা ঘিরে ফেলে। তখন র‌্যাব ফোর্সেস মাইকযোগে তাদেরকে বারংবার আতœসমর্পণের জন্য অনুরোধ করে। ডাকাত গ্রæপ র‌্যাব ফোর্সের এর কথা না শুনে র‌্যাব ফোর্সেসকে উদ্দেশ্য করে এলোপাতাড়িভাবে গুলি চালাতে থাকে। র‌্যাব ফোর্সেস নিজের জীবন ও সরকারী সম্পদ রক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। উভয় পক্ষের মধ্যে থেমে থেমে আনুমানিক ০১ ঘন্টা বন্দুকযুদ্ধ হয়। পরবর্তীতে গোলাগুলি থামলে র‌্যাব ফোর্সেস উক্ত আস্তানায় অস্ত্রশস্ত্রসহ কুখ্যাত ডাকাত জকির এবং আরো ০২ (দুই) টি মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে। উল্লেখ্য যে, উক্ত অভিযানে র‌্যাবের আভিযানিক দলের একজন র‌্যাব সদস্য গুলিবিদ্ধসহ ০২ জন আহত হয়। গোলাগুলিতে নিহত জকির দলের মূলহোতা জকির ডাকাতের বিরুদ্ধে অস্ত্র, হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ এবং মাদকসহ ২০ টির অধিক মামলা রয়েছে। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে ঘটনাস্থল হতে ০২ টি বিদেশী পিস্তল, ০২ টি বন্দুক, ০৫ টি ওয়ানশুটারগান এবং ২৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।
উদ্ধারকৃত অস্ত্রশস্ত্র, গোলাবারুদ ও মৃতদেহ সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT