রোহিঙ্গাদের কারনে ২০ মাস ধরে বন্ধ জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রমঃ ভোগান্তির শেষ কবে ?

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, মে ৮, ২০১৯
  • 340 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

 

মাহাবুবুর রহমান.

দীর্ঘ ২০ মাসের বেশি সময় ধরে কক্সবাজারে বন্ধ আছে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম। এতে চরম ভোগান্তির শেষ নেই কক্সবাজারের স্থানীয় বাসিন্দাদের। এতদিন কোন মতে চালিয়ে দিলেও এখন ভোটার তালিকা হালনাগাদ করতে অনলাইনে বাধ্যতামূলক জন্ম নিবন্ধন কপি সংযোজন করতে হচ্ছে কিন্তু সেটা না পাওয়ায় চরম বিপাকে পড়ছে নতুন ভোটার হতে আগ্রহীরা। রোহিঙ্গাদের কারনে কক্সবাজারের স্থানীয় মানুষের সমস্যার শেষ নেই তার উপর দীর্ঘ ২০ মাস ধরে জাতীয় সার্ভার বন্ধ থাকার কথা বলে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন বন্ধ থাকায় চরম ক্ষোব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেছে সচেতন মহল। তাই দ্রুত জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম স্বাভাবিক করার দাবী জানান জেলার সাধারণ মানুষ।
২০১৭ সালের ২৫ আগষ্টের পর থেকে পার্শবর্তি দেশ মিয়ানমার সেনাবাহিনি কর্তৃক নির্যাতনের স্বীকার হয়ে বাংলাদেশে রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিলে তাদের বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করার জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয় কক্সবাজার সহ কয়েকটি জেলা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম। এর মধ্যে কেটে গেছে প্রায় ২০ মাস কিন্তু এখনো সচল হয় নি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম। এই ২০ মাসের মধ্যে প্রায় ১১ লাখ ৪০ হাজার রোহিঙ্গার বায়োমেট্রিক নিবন্ধন কার্যক্রম শেষ হয়েছে ১ বছরের বেশি সময় হবে কিন্তু কক্সবাজারের মানুষের ভোগান্তি এখনো শেষ হয়নি। অনেকে পাসপোর্ট করতে গিয়ে আবার অনেকে স্কুলে ভর্তি হতে গিয়ে.বিদেশে যেতে ভিসা করতে সহ প্রতি পদে পদে চরম হয়রানীর স্বীকার হতে হয়েছে স্থানীয় মানুষজনদের। কিন্তু এখন চরম ভোগান্তিতে পড়েছে নতুন ভোটার হতে যাওয়াদের, কারন নির্বাচন কমিশন আইন অনুযায়ী নতুন ভোটার হতে গেলে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতা মূলক। কিন্তু সেই কপি দিতে না পারায় অনেকে সঠিক সময় ভোটার হতে পারবে কিনা সেই চিন্তাই অস্থির হয়ে আছে।
আলাপ কালে শহরের উত্তর রুমালিয়ারছড়ার নুরুল আবছারের ছেলে আরফাতুল ইসলাম বলেণ,আমি এবারে এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রার্থী। আমার ঘরে হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন আছে কিন্তু এবারে নতুন করে ভোটার হতে গিয়ে ভোটার কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তারা সেটা গ্রহন করছে না। পরে আমি পৌরসভায় সেটা অনলাইনে নিবন্ধন করাতে গেলে তারা বলে জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম বন্ধ আছে ২০ মাসের বেশি সময় ধরে। এখন একটি প্রত্যায়ন পত্র দেওয়ার কথা বলছে। কিন্তু ভোটার করানোর কাজে দায়িত্বপ্রাপ্তরা সেটা গ্রহন করছে না। এখন বুঝতে পারছি না ভোটার হতে পারবো কিনা। এভাবে অসংখ্য তরুন ভোটার নতুন ভাবে ভোটার তালিকায় নাম লেখাতে গেলেও অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সনদ না থাকায় ভোটার হতে পারছেনা বলে জানান তারা।
আর এ সময় সমস্যা শুধু পৌর এলাকা নয় পুরু কক্সবাজারের। এ ব্যপারে জানতে চাইলে পৌরসভার ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সুপারভাইজার ও এবং টেকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল হক বলেন,নির্বাচন অফিস থেকে আমাদের নির্দেশনা দেওয়া আছে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ছাড়া কোন ভাবেই তাদের কাগজ পত্র গ্রহনযোগ্য হবেনা। তাই বেশির ভাগ ভোটারের কাগজপত্র গ্রহন করা যাচ্ছে না।এদিকে কক্সবাজার পৌরসভার প্রশাসনিক কর্মকর্তা খোরশেদ আলম বলেন,২০১৭ সালের আগষ্টের পর থেকে কক্সবাজার এবং বান্দারবান জেলার অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম বন্ধ আছে। একই সময়ে আরো কয়েকটি জেলায় জাতিয় সার্ভারে এই ভাবে কার্যক্রম বন্ধ করে দিলেও অনেক জেলাতে খুলে দিয়েছে কিন্তু কক্সবাজারের টা এখনো খুলে দেয়নি এটা সত্যি দুঃখ জনক। এর ফলে জেলার স্থানীয় মানুষ সীমাহিন কষ্ট পাচ্ছে।
এ ব্যপারে খুরুশকুল ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন বলেণ,অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন বন্ধ থাকায় মানুষ পাসপোর্ট,বিদেশ যাত্রা,স্কুলে ভর্তি সহ অনেক কাজে চরম ভাবে কষ্ট পাচ্ছে। আবার কিছু প্রতারক চক্র ঢাকা থেকে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করবে বলে ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এটা চরম অন্যায়। কারন ঢাকা থেকে সাময়িক ভাবে করলেও পরে ঠিকই তা আবার মুছে যাচ্ছে। এ বিষয়ে তিনি জনগণকে সচেতন থাকায় পরামর্শ দেন। এবং দ্রুত জন্ম নিবন্ধন সার্ভার খুলে দেওয়া দাবী জানান।
ঝিলংজা ইউপি চেয়ারম্যান টিপু সুলতান জানান,জন্ম নিবন্ধন সার্ভার খুলে দেওয়ার জন্য আমরা বহুবার বিভিন্ন সভায় বলেছি সব সময় আশ^াষ দেওয়া হলেও এখনো জাতীয় সার্ভার না খুলা খুবই দুঃখ জনক। প্রতি দিন অনেক মানুষ আসছে জন্ম নিবন্ধনের জন্য কিন্তু জনগণকে তার প্রাপ্য সেবা দিতে পারছিনা।
কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান বলেণ,জন্ম নিবন্ধনের বিষয়টি নিয়ে বহু বার ঢাকার শীর্ষ কর্মকর্তাদের সাথে ও কথা বলেছি। উনারা বলেছে খুব দ্রুত সেটা খুলে যাবে। এর মধ্যে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনও বেশি চেস্টা করছে আশা করি দ্রুত একটি সমাধান আসবে।
এদিকে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ বশিরুল ইসলাম বলেন,নির্বাচন কমিশন আইন অনুযায়ী অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ছাড়া কোন ভাবেই ভোটার হতে পারবে না কিন্তু কক্সবাজারে জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম বন্ধ আছে সেটা আমি নির্বাচন কমিশনকে অবহিত করেছি। আমি আশা করছি খুব দ্রুত অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সার্ভার খুলবে। এর পরও যদি না হয় তাহলে নির্বাচন কমিশন যে ভাবে নির্দেশ দেবে সেভাবেই কাজ হবে। তবে আপাতত অবশ্যই অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন লাবগে।
এব্যপারে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ আশরাফুল আফসার বলেণ,জন্ম নিবন্ধন বিষয়ে আমাদের জেলা প্রশাসক মোঃকামাল হোসেন মহোদয় নিজে বেশ কয়েকবারউচ্চ পর্যায়ে চিঠি দিয়েছে কথা বলছে আশা করি খুব দ্রুত একটি ভাল ফলাফল আসতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT