রামুতে একই রাতে ৩টি বাড়িতে গরু চুরি

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, মার্চ ১০, ২০২১
  • 187 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

সোয়েব সাঈদ ॥
রামুতে একই রাতে ৩টি বসত বাড়িতে গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে। সংঘবদ্ধ চোরের দল এসব বাড়ি থেকে ৩টি গরু নিয়ে গেছে। যার মূল্য ৩ লাখ টাকারও বেশী। সোমবার (৮ মার্চ) দিবাগত রাতে রামুর ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের সাতঘরিয়া পাড়া ও পূর্ব মেরংলোয়া উত্তপাড়া এবং জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের ভরাছরাকুল গ্রামে এসব চুরির ঘটনা ঘটে। এক রাতে সিরিজ চুরির ঘটনায় গরু খামারী ও কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে পড়েছে চরম আতংক।
রামুর ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের সাতঘরিয়া পাড়ার মৃত আবদুস সালামের ছেলে ছৈয়দ কামাল (৪০) জানিয়েছেন-সোমবার রাত ৩টার দিকে তার গোলাল ঘরে থাকা ৫০ হাজার টাকা মূল্যের গরুটি সংঘবদ্ধ চোরের দল চুরি করে নিয়ে যায়। এরআগে গত রমজান মাসেও তার ৩টি গরু চুরি হয়েছিলো। এখন তার গোয়াল ঘরটি শূন্য হয়ে গেছে। তিনি আরো জানান-বিভিন্ন ব্যাংক ও সংস্থা থেকে ঋন নিয়ে তিনি গরু লালন-পালন করতেন। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) সকালে ছৈয়দ কামালের বাড়িতে গেলে তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এছাড়াও তার স্ত্রী এ বর্বরতায় নির্বাক হয়ে পড়েন। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ছৈয়দ কামাল।
একই ইউনিয়নের পূর্ব মেরংলোয়া উত্তর পাড়া গ্রামের আবু তাহের জানিয়েছেন-সোমবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে তার বসত বাড়ির পাশর্^বর্তী গোয়াল ঘর থেকে ৬০ হাজার টাকা মূল্যের একটি গরু সংঘবদ্ধ চোরের মাইক্রোবাস যোগে লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় স্থানীয় আবুল হোসেনের ছেলে মুজিবুর রহমান প্রকাশ কালু (২৩) কে অভিযুক্ত করে মঙ্গলবার দুপুরে রামু থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন-আবু তাহেরের ছেলে রেজাউল আমিন।
জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের ভরাছরাকুল গ্রামের হাজ¦ী মকতুল হোসেনের ছেলে মুফিজুর রহমানের ২ লাখ টাকা মূল্যের বিশাল গরুটি সোমবার দিবারাতে রাতে লুট করে নিয়ে চোরের দল। মুফিজুর রহমান জানিয়েছেন-রাতে সাড়ে ৩টার দিকে গোয়াল ঘরের দরজার লোহার পাটাতন কেটে গরুটি নিয়ে যায়। তিনি আরো জানান-গরুটি অনেক বড়। যে কারণে পিকআপ ছাড়া গরুটি নেয়া সম্ভব নয়। তিনি গরুটি উদ্ধারের পুলিশ প্রশাসনের সহায়তা ছেয়েছেন।
রামুর ডেইরী ফার্ম মালিক সমিতির সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফ্ফর আহমদ জানিয়েছেন-রামুতে বিগত কয়েক বছর ধরে গরু ডাকাতির মহোৎসব চলছে। অথচ পুলিশ প্রশাসন সহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনী এ ব্যাপারে কার্যকর কোন ভুমিকা রাখছে না।
রামু থানার ওসি (তদন্ত) অরূপ কুমার চৌধুরী জানিয়েছেন-অভিযোগ দিয়ে থাকলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাবে এবং তদন্ত করে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT