শিরোনাম :
কক্সবাজারে বিমান উড্ডয়নের সময় ধাক্কাতে ২ টি গরুর মৃত্যু : বড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা চকরিয়ায় ব্যালট পেপার বিনষ্টের অভিযোগে মামলা: প্রিজাইডিং অফিসার কারাগারে খুরুশকুল এলাকায় অভিযানে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-আটক ১ কস্তুরাঘাট সংলগ্ন বাকঁখালী নদী এখন প্রভাবশালীর ব্যাক্তিগত জমি বদরখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নৌকা প্রার্থীর ভাগ্নেকে পিটিয়ে হত্যা ঈদগাঁওতে শীতমৌসুমে গরম কাপড় কিনতে ক্রেতাদের ভীড় চকরিয়ায় ১০ ইউপিতে আ‘লীগ ৫ স্বতন্ত্র ৫ মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যাচেষ্টা, মহেশখালীর মেয়রসহ ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা পিএমখালীতে ইয়াবা সহ আটক হোসেনের সিন্ডিকেট এখনো অধরা নাফ নদ থেকে ১ কেজি আইসসহ পাচারকারী আটক

মামলা থেকে বাদ দিতে ১ লাখ টাকা চাঁদা নিল কমিউনিটি পুলিশ নেতা: থানায় অভিযোগ

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, এপ্রিল ১৩, ২০২০
  • 104 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

কক্স৭১
মামলা থেকে নাম বাদ দিতে ওসি এবং আইসিকে টাকা দেওয়ার কথা বলে ১ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়ন কমিউনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল আলম ও তার ছেলে পাভেলের বিরুদ্ধে এ বিষয়ে টেকনাফ থানায় সাধারণ ডাইরী করেছে একই এলাকার পারভীন আক্তার নামের এক গৃহবধু।
ডায়রীতে তিনি উল্লেখ করেছেন, তার স্বামী ফয়সালের নামে টেকনাফ থানায় মামলা রয়েছে, কমিউনিটি পুলিশিং হ্নীলা ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ওইসব মামলা থেকে বাদ দেয়া যাবে। তাই এক লক্ষ টাকা দরকার। বাদীনিও সরল বিশ্বাসে নগদ এক লক্ষ টাকা প্রদান করেন। যা ভিডিওতে রেকর্ড রয়েছে। তিনি আরও উল্লেখ করেন যে, গত ১০এপ্রিল দুপুরে আমার (স্বামীর) ঘরে এসে অভিযুক্ত শফিক আরও ৪লক্ষ টাকা দরকার বলে দাবী করেন। তারা চলে যাবার পর আমরা হোয়াইক্যং ফাঁড়িতে গিয়ে বিষয়টি অবহিত করি। ফাঁড়ি থেকে আসতে একটু বিলম্ব হওয়ায় কমিউনিটি পুলিশিং সদস্য ওই শফিকুল আলম পুলিশের পোষাক পরিহিত ৪-৫জনকে এনে আমার ৫ভরি স্বর্ণলঙ্কার, নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে গেছে। পরদিন সকালে শফিকের কাছে লুটে নেয়া মালামাল ফেরত চাইলে পুলিশ নিয়ে গেছে তাদের কাছ থেকে নিয়ে আনার কথা জানায়।
এলাকাবাসীর মতে কমিউনিটি পুলিশিংয়ের ধমক দেখিয়ে ওই শফিকুল স্থানীয় একাধিক ব্যক্তিকে হয়রানি করেছে । টাকা নেয়ার ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, কমিউনিটি পুলিশিং সদস্য শফিকুল নগদ টাকা গুণে নিচ্ছেন। ভিডিও ফুটেজে প্রমাণ থাকা সত্বেও পুলিশের দোহাই দিয়ে পার পেয়ে যাবার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন ওই কমিউনিটি পুলিশিং নেতা। তিনি হ্নীলা এলাকার বিত্তশালী একাধিক লোকজনের কাছ থেকে মামলার ধমক দিয়ে টাকা আদায় করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। ভূক্তভোগী গৃহবধূ পারভীন আক্তার এ ব্যাপারে নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে সঠিক বিচার পেতে জেলা পুলিশ সুপারসহ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। #

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT