ভূয়া বিলভাউচার, কর্মচারী লাপাত্তারামুতে পিয়নের একাউন্টে প্রকল্প বরাদ্দের কোটি টাকা

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, মে ৯, ২০১৯
  • 254 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

 

মাহাবুবুর রহমান.

কক্সবাজারের রামু উপজেলার বিভিন্ন প্রকল্পের নামে বরাদ্দ হওয়া দুই কোটি টাকা আত্মসাত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনা কিছুটা জানাজানি হওয়ার পর মাষ্টার রুল কর্মচারী লাপাত্তা এবং পিআইও কৌশলে বদলী হয়ে গেছে অন্যত্র।
জানা যায়, রামু উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জুবায়ের হাসান যথানিয়মে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন ও কাবিখাসহ বহু প্রকল্প দেখিয়ে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে বরাদ্দ চেয়ে আবেদন পাঠান। ঠিকই বরাদ্দও মিলে যায়। বিশাল অঙ্কের সরকারী ওই টাকা আত্মসাত করতে পরিকল্পণা নেয় ব্যাংক ব্যবস্থাাপকসহ কয়েকজন সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারী। একাউন্ট খুলে দেয়া হয় নোমান এরশাদ নামে পিআইও অফিসের একজন পিয়নের নামে। এরপর বিভিন্ন ভূয়া বিলভাউচারের বিপরীতে ওই পিয়নের একাউন্টে টাকা জমা করা হয় লাখ লাখ টাকা। পরবর্তীতে ওই পিয়ন চেক দিয়ে বিভিন্ন কিস্তিতে টাকা উত্তোলন করে নিজেদের মধ্যে ভাগবাটোয়ারা করে নেয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, ব্যাংকের নিয়ম অনুসারে একজনের ব্যক্তিগত বিল অপরজনের একাউন্টে হস্তান্তর বা নগদ জমা করার নিয়ম নেই। রামু উপজেলার বিভিন্ন প্রকল্পের যাবতীয় বিলসহ অনেক সময় নগদ টাকা ওই কর্মচারীর হিসাবে (নং- ০৯০৭৬০১০১৫১২০) সোনালী ব্যাংক রামু শাখায় জমা ও পরে উত্তোলন করার প্রমাণ মিলেছে। অনুসন্ধানে জানা যায়, পিআইও অফিসের পিয়ন রামু পশ্চিম মেরুংলোয়া এলাকার বাসিন্দা নোমান এরশাদ সোনালী ব্যাংক রামু শাখার তার ব্যক্তিগত হিসাব থেকে ২০১৮ সালের ২৮আগস্ট পর্যন্ত ৮৭ লাখ ৯হাজার ৯৮১টাকা উত্তোলন করে নিয়ে গেছে। এছাড়াও কিছু কিছু বিল একাউন্টে জমা না করে নগদ টাকা উঠিয়ে নিয়ে যাবার তথ্য মিলেছে। ব্যাংকের কতিপয় কর্মকর্তার সঙ্গে আঁতাত করে পিআইও জুবায়ের হাসান ওই পিয়নের নামে ব্যাংকে হিসাব খুলে সরকারী বরাদ্দের ২কোটি টাকা লুপাট করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। ঘটনা জানাজানি হবার পর ভয়ে ওই পিয়ন চাকরি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে বলে জানা গেছে। বর্তমানে তার নিজ বাড়ি সহ বিভিন্ন মহলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে সে দীর্ঘ দিন ধরে লাপাত্তা। এদিকে নোমান এরশাদের ঘনিষ্ট একাধিক সূত্র মতে, পিয়ন নোমান ছিল দুর্নীতিবাজ ওই কর্মকর্তাদের হাতের পুতুল মাত্র। সে চাকরি দীর্ঘস্থাায়ী হওয়ার আশায় কর্মকর্তার হুকুম তামিল করেছে মাত্র।
সূত্রে জানা গেছে, প্রতি অর্থবছরে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন প্রকল্পের বিপরীতে মোটা অঙ্কের টাকা বরাদ্দ দেয় সরকার। গত অর্থ বছরে বরাদ্দ দেয়া প্রকল্প থেকে রামুতে দুর্নীতির মাধ্যমে প্রায় ২কোটি টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার বিষয়টি উর্ধতন কর্মকর্তাগণ জেনে যাবার পর উপজেলা প্রশাসন এ বিশাল সরকারী টাকা আত্মসাতের দায় এড়াতে কৌশল অবলম্বণ করছে। তারা মাষ্টার রুলে কর্মচারী নোমান এরশাদ লাপাত্তা হয়ে গেছে বলে বিষয়টি দামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। মোটা অঙ্কের এ টাকা কোথায় এবং কিভাবে বয় করা হয়েছে, এ বিষয়ে কারও কাছে সঠিক তথ্য মিলছেনা। সোনালী ব্যাংকে উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দফতরের নামে একাউন্ট বিদ্যমান থাকা সত্বেও একজন পিয়নের একাউন্টে সরকারী বরাদ্দের কোটি টাকা জমা করার পেছনে রহস্য কি জানতে চান স্থাানীয়রা। গত কয়েকমাস ধরে ওই পিয়ন লাপাত্তা হয়ে যাবার পেছনে নিশ্চয় কারো ইন্ধন রয়েছে বলে ধারণা সচেতন মহলের।
সূত্র আরও জানায়, আগে পিয়নকে পালিয়ে যেতে উদ্ভুদ্ধ করে পরবর্তীতে অন্যত্র বদলী হয়ে গেছেন পিআইও জুবায়ের হাসান। লাপাত্তা হলেও দুর্নীতিবাজ পিআইও, ব্যাংক কর্মকর্তা এবং একাধিক জনপ্রতিনিধির সঙ্গে ওই পিয়নের বিভিন্নভাবে যোগাযোগ রয়েছে। পিআইও অফিসের একজন পিয়নের নামে একাউন্টে কোটি টাকা লেনদেন, তাও আবার সরকারী প্রকল্পের বিপরীতে বিল, বিষয়টি সচেতন মহলকে ভাবিয়ে তুললেও উপজেলা প্রশাসন ও রামু সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা ব্যাপারটি দামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। এ ব্যপারে অভিযুক্ত পিআইও জোবায়ের হাসানের সাথে
এ ব্যপারে রামু সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার জসিম উদ্দিন বলেণ,বিষয়টি ব্যাংকের কোন অনিয়ম হয়নি। সমস্ত বিল আমরা ক্যাশ পরিশোধ করার পর এখন ক্যাশ টাকা নিয়ে প্রকল্প কমিটির লোকজন কোথায় কোন একাউন্টে জমা দেবে সেটা তাদের ব্যাপার। মূলত সম্প্রতী রামু পিআইও অফিসে নিজস্ব কিছু সমস্যা হওয়ায় এসব কথা বাইরে আসছে।
এদিকে রামু উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল বলেন,আমি এখনো দায়িত্বভার গ্রহন করিনি। পিআইও অফিস বিষয় এ ধরনের কিছু কথা বিভিন্ন গণমাধ্যমের মাধ্যমে কানে আসছে। আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর এ বিষয়ে খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবসা নেব।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT