ভারী বর্ষণে কালিরছড়া মাদ্রাসা  প্লাবিত : তলিয়ে গেছে বীজতলা

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, জুলাই ১০, ২০১৯
  • 256 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

 

এম আবুহেনা সাগর,ঈদগাঁও

কয়দিনের ভারী ও টানা বর্ষণে ঈদগাঁওর বিস্তীর্ণ এলাকা কোমর পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়ার পাশাপাশি কালিরছড়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা প্লাবিত হয়ে জনদূর্ভোগ চরমে উঠেছে। অসংখ্য ঘরবাড়ীসহ নারী পুরুষরা নিদারুন কষ্ট পাচ্ছে। দেখা যায়,বৃষ্টির পানি চলাচলের কোন সুব্যবস্থা না থাকায় ঈদগাঁও বাজারের হাসপাতাল সড়ক, তেলীপাড়া সড়ক ও বাঁশঘাটা সড়ক প্লাবিত হয়। যাতে করে,বাজারে আগত লোকজন চলাচলে কষ্ট পাচ্ছে। থেমে থেমে বৃষ্টিপাত কোন ভাবেই কমছেনা। এছাড়াও টানা ভারী বৃষ্টিপাতে পানি বন্দি হয়ে পড়েছে কালিরছড়া মিফতাহুল উলুম হেফজখানা ও এতিমখানা আর ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় প্লাবিত হয়। হাফেজ আবদুল মালেক এ প্রতিবেদককে জানান,গতরাত প্রায় বারটার দিকে এতিমখানা ও মাদ্রাসায় পানিবন্দি হওয়ায় ছাত্রদেরকে মসজিদে ঘুমাতে হয়েছে। লেখাপড়া নিয়ে চরম দূর্ভোগ আর দূর্গতি পড়ে শিক্ষার্থীরা।
ঈদগাঁওর কালিরছড়ার বালুরচর পাড়ায় খালের পাশ্বর্বতী একশত থেকে দেড়শতটি বসতবাড়ীর উঠানে কনুই পরিমান পানিতে নিমজ্জিম ছিল বলে জানায় গৃহবধু আয়েশা বেগম। মৌলভীর কূম নামক স্থানে এপার ওপার পারাপারের জন্য ব্রীজ বর্তমানে ঝুঁকিপূণ। যে কোন মুহুর্তে বন্যার পানির তোড়ে ভেসে যাওয়ার আশংকা করেছেন এলাকাবাসী।
আবার একই ইউনিয়নের মাইজ পাড়ায় খালের তীরবর্তী বাড়ীঘরের উঠানে পানি নিমজ্জিম হয়। যাতে করে,বহু বসতবাড়ীতে বৃষ্টির পানি চষার কারনে চোলায় আগুন জ্বালাতে পারেনি। জন দূূভোগ পড়েছে লোকজন। পুরনো ও ঐতিহ্যবাহী খাল দখল করে বাড়ীঘর,দালান কোঠা নির্মান করার কারনে বৃষ্টির পানি খাল দিয়ে সুষ্টভাবে যাতাযাত করতে না পারায় এমন দশার সৃষ্টি বলে জানালেন এলাকার কজন ব্যাক্তি।
বৃহত্তর এলাকার শত শত একর জমির বীজতলা পানিতে তলিয়ে গেছে। চাষাবাদ করতে না পেরে কৃষকদের মাঝে বুকফাটা আর্তনাদ কান্নায় আকাশ বাতাশ ভারী হয়ে উঠেছে। কক্সবাজার প্রতিদিনের ষ্টাফ রিপোটার প্লাবিত হওয়া বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমনটি জানা গেছে। ঈদগাঁও নদীর প্রমত্তা রূপ,পাহাড়ী ঢল নিয়ন্ত্রণে কোন টেকসই ও কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। সচেতন লোকজন জানান,মেহেরঘোনা জল নাশীকে খনন করে দু’পাশে বেড়িবাঁধ নির্মাণ করে ঈদগাঁও নদী থেকে চৌফলদন্ডী খাল পর্যন্ত সংযুক্ত করে দিলে বন্যার অতিরিক্ত পানি নিষ্কাশনের পাশাপাশি ওই অঞ্চলের জনগণ, হাজার হাজার একর আবাদি জমি,লবণ মাঠ বন্যার ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা পাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT