বন কর্মকর্তার বাড়িতেই তৈরি হচ্ছে বানিজ্যিক ফার্নিচার

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, এপ্রিল ৯, ২০১৯
  • 208 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে
?

 

মাহাবুবুর রহমান.

কক্সবাজারে বন কর্মকর্তার বাড়িতে তৈরি হচ্ছে বানিজ্যিক ফার্নিচার। দীর্ঘ দিন ধরে মূল্যবান কাঠ দিয়ে বাড়িতে ফার্নিচার তৈরি করে নিজ জেলাতে পাঠিয়ে ব্যবসা করে আসছেন তিনি। কক্সবাজার দক্ষিন বন বিভাগের প্রধান সহকারী শাহ আলম শহরের পুরাতন সায়মন রোড়স্থ বন বিভাগের আবাসিক ভবনের পাশে দীর্ঘ দিন ধরে এই ফার্নিচার তৈরি করে ব্যবসা করে আসছে বলে জানান খোঁদ তারই সহকর্মীরা।
সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে সায়মন রোডস্থ বন বিভাগের আবাসিক ভবনের এক পাশে বন বিভাগের কর্মচারী নান্নু মিয়ার বাড়ি পাশেই তাম্বু টাঙ্গিয়ে তৈরি করা হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের ফার্নিচার। এতে সেগুন,গর্জন,আকাশমনি গাছ সহ অনেক মূল্যবান কাঠের ফার্নিচার আছে। ফার্নিচার বিষয়ে নান্নু মিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,এগুলো আমার না। আমার উর্ধতন কর্মকর্তা শাহ আলম সাহেবের। এ ফার্নিচার কোথায় যায় কি করে এসব বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। অবশ্য নাম প্রকাশ না করে আরো কয়েকজন বন কর্মচারী বলেন,অফিসের প্রধান সহকারী শাহ আলম বেশ কয়েক বছর ধরে এই ফার্নিচার ব্যবসা করে আসছে। মূলত তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিভিন্ন ভাবে কাঠ সংগ্রহ করে নিজের নামে ফার্নিচার বানিয়ে উনার নিজ জেলা ফেনী সহ বিভিন্ন জেলায় পাঠিয়ে দেয়। উনাকে জিঙ্গেস করলে বলেন এগুলো বাসায় ব্যবহার করার জন্য তবে আমাদের প্রশ্ন হচ্ছে বছরের পর বছর কিভাবে বাসার জন্য ফার্নিচার তৈরি করে। আর ইতি পূর্বে বেশ কয়েক বার বড় ট্রাকে করে তৈরি করা ফার্নিচার উনার নিজ জেলাতে নেওয়া হয়েছে বলে আমরা জানি। এছাড়া উক্ত শাহ আলম দরিয়া নগর,হিমছড়ি ইজারা দারের সাথে যৌথ ব্যবসা আছে বলে ধারনা করছে অনেকে। এ ব্যপারে বন বিভাগের অফিস সহকারী শাহ আলম বলেন,ফার্নিচার গুলো আমার বাসায় ব্যবহার করার জন্য তৈরি করা হচ্ছে। এগুলো নিয়ে ব্যবসা করি এরকম প্রমান কেউ দিতে পারবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT