বঙ্গমাতা ফুটবল খেলায় সংঘর্ষঃ মহেশখালী দলের ৫ নারী ফুটবলার আহত

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯
  • 138 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে
?

মাহাবুবুর রহমান.
সারা দেশের ন্যায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলায় সংঘর্ষের মধ্যে মহেশখালী উপজেলার ৫ জন নারী খেলোয়াড় আহত হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে খেলায় হেরে কক্সবাজার পৌরসভার খেলেয়াড়রা মহেশখালীর খেলোয়াড়দের উপর হামলা করে।
জানা গেছে ১৮ সেপ্টেম্বর যথারীতি বেলা ১১ টা থেকে কক্সবাজার বীর শ্রেষ্ট রুহুল আমীন স্টেডিয়ামে কক্সবাজার পৌরসভা এবং মহেশখালী (অনূর্ধ-১৭) টিমের মধ্যে খেলা হয়। এতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ১-০ গোলে পরাজিত হয় কক্সবাজার পৌরসভা দল। পরে খেলা শেষে ড্রেসিং রুমে গিয়ে মহেশখালীর সুমাইয়া নামে একজন খেলোয়াড়কে পুরুষ হিসাবে মনে করে তাকে ব্যাপক মারধর করে। পরে তাকে বাচাঁতে আসলে আরো কয়েকজনকে ব্যাপক মারধর করে কক্সবাজার পৌরসভার নারী খেলোয়াড় এবং তাদের সাথে আসা বেশ কিছু উশৃংখল যুবক। এতে আহত হয় মহেশখালী নারী ফুটবল দলের খেলোয়াড় রুমা আক্তার,সুমাইয়া,আখিনুর,মরিজুন্নাহার,রীমা আক্তার। অবশ্য কক্সবাজার পৌরসভার কয়েকজন নারী এবং পুরুষ কাউন্সিলার তাৎক্ষনিক হস্তক্ষেপ করে তাদের উদ্ধার করে সেবাযন্ত করেন। এ ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে কক্সবাজার পৌরসভার টিম ম্যানেজার প্যানেল মেয়র-২ হেলাল উদ্দিন কবির বলেন,খেলা শেষ হলে আমি একটু বাইরে গেলে এর মধ্যে অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটে এটা সত্যি দুঃখ জনক। দোষী খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ও জানান তিনি। তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে পৌরসভা টিমের দায়িত্বে থাকা এক ডিএসএ সদস্য তার দলের নারী ফুটবলার দের মারামারি করতে উস্কে দিয়েছে এবং তার ইন্দনেই এই ঘটনা হয়েছে।
এ সময় উপস্থিত মহেশখালী উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আজিজ সুজন বলেন,এটা কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায়না। মূলত খেলায় হেরে প্রতিশোধ পরায়ন হয়ে বাইরে থেকে ছেলে ডেকে এনে পরিকল্পিত ভাবে হামলা করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT