এক দামে বই বিক্রির নামে বাণিজ্য শিরোনামে সংবাদের প্রতিবাদ

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, নভেম্বর ২৭, ২০১৯
  • 358 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

কক্সঃ৭১
আপনার সদয় অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জানানো যাচ্ছে গত ২৬/১১/২০১৯ তারিখে আপনার প্রতিক দৈনিক কক্সবাজারে প্রকাশিত “একদামে বই বিক্রির নামে বাণিজ্য” শিরোনামের সংবাদটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এখানে উল্লেখ্য বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক রেজিষ্ট্রিকৃত বাণিজ্যিক সংগঠন। যার রেজিস্ট্রেশন নং- জবম. ঘড়. ঈ-ঞ.ঙ.১৪৭/২ ড়ভ ১৯৮১-৮২ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক অনুমোদিত সমিতির নিজস্ব সংঘস্মারক ও সংঘবিধি দ্বারা সমিতি পরিচালিত হয়। দেশের ব্যবসায়-বাণিজ্যে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক জারীকৃত বাণিজ্য সংগঠন বিধিমালা ১৯৯৪-এর ৫(১) (ক) ও (খ) এবং (৫ক) এর বিধান আপনার সদয় দৃষ্টি আকষর্ণার্থে নি¤েœ প্রদত্ত হল : এস,আর ও নং-১০৫-আইন/৯৪ তারিখ: ২৮ শে ফাল্গুন, ১৪০০/১২ই মার্চ, ১৯৯৪ “ ৫। (১) (ক) উক্ত কোম্পানী উহার নিবন্ধিকৃত কার্যালয় যে স্থানে অবস্থিত এবং উক্ত ব্যক্তি, অংশীদারী কারবার বা প্রতিষ্ঠান উহার বা তাহার প্রধান কার্যালয় বা কর্মস্থল যে স্থানে অবস্থিত, সেই অঞ্চলের শিল্প বা ব্যবসা বাণিজ্যের প্রতিনিধিত্বকারী বাণিজ্য সংগঠনের সদস্য হইবেন ; অথবা (১) (খ) উক্ত ব্যক্তি, কোম্পানী কারবার বা প্রতিষ্ঠান সমগ্র বাংলাদেশ ভিত্তিতে গঠিত এবং সংশিষ্টø ব্যবসা, বাণিজ্য বা শিল্পের প্রতিনিধিত্বকারী কোন এসোসিয়েশন বা চে¤া^র অব ইন্ডাষ্ট্রীর সদস্য হইবেন। ” এস,আর ও নং-১৯০-আইন/৯৬ তারিখ: ৮ই কার্তিক, ১৪০৩/২৩ শে অক্টোবর, ১৯৯৬ “ ৫ (ক) নিবন্ধিত সদস্য বিধি ৫ এবং এই বিধিমালার অন্যান্য বিধিতে যাহা কিছুই থাকুক না কেন- (ক) যে কোন ব্যক্তি সমগ্র বাংলাদেশ ভিত্তিতে গঠিত এবং সংশিষ্টø ব্যবসা, বাণিজ্য বা শিল্পের প্রতিনিধিত্বকারী এসোসিয়েশন বা যে কোন চে¤া^রের আবশ্যিকভাবে সদস্য হইবেন। ” তাছাড়া অত্র সমিতি এফবিসিসিআই এর সদস্য। অত্র সমিতি দেশের শিক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে দীর্ঘদিন যাবত অবদান রেখে আসছে। গত ২০ মার্চ ২০১৯ তারিখে বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় দেশের সকল জেলা থেকে সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। উক্ত সভায় প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী জনাব কে.এম খালিদ এম.পি। উক্ত বার্ষিক সাধারণ সভায় দেশের কোমলমতি শিক্ষার্থীদেরকে সুলভ মূল্যে বই পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিতকরণের জন্য পূর্বনির্ধারিত ফর্মামূল্যের চেয়ে ফর্মামূল্য কমিয়ে আনার এবং গায়ের মূল্যে বই বিক্রয় করার সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়। পুস্তক ব্যবসায় শৃঙ্খলা আনয়ন এবং বই ক্রেতাদেরকে সহজভাবে বই ক্রয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য অত্র সমিতি পূর্ব নির্ধারিত ফর্মামূল্যের চেয়ে প্রায় ২০%-২৫% ফর্মামূল্য কম নির্ধারণ করে গায়ের মূল্যে বই বিক্রয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এমতাবস্থায় আপনার পত্রিকায় প্রকাশিত “একদামে বই বিক্রির নামে বাণিজ্য” শিরোনামে যে সংবাদ পক্রাশিত হয়েছে তা জনমনে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে মর্মে সঠিক তথ্য উপস্থাপনের জন্য ২১ মার্চ ২০১৯ তারিখে দেশের বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকসমূহে বইয়ের মূল্য কমানোর সংবাদটি অত্র পত্রের সাথে সংযুক্ত করা হলো। গায়ের মূল্যে বই বিক্রির বিষয়টি নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সারা দেশে সমিতি কর্তৃক লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। সমিতির সকল জেলা শাখার ন্যায় কক্সবাজার জেলা শাখাও সমিতির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে বদ্ধপরিকর বিধায় অত্র জেলার সদস্যবৃন্দ গায়ের মূল্যে বই বিক্রয় করছে।
অতএব, আমরা মনে করি আপনাদের প্রকাশিত সংবাদটি জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি ও কক্সবাজার জেলা শাখার পুস্তক ব্যবসায়ীরা হেয়প্রতিপন্ন হচ্ছে। সুতরাং আমরা আমাদের ব্যবসায়িক অবস্থান আপনার নিকট উপস্থাপন করলাম এবং আমাদের প্রতিবাদলিপিটি আপনার বহুল প্রচারিত পত্রিকায় প্রকাশ করে আমাদেরকে কৃতজ্ঞতার বন্ধনে আবদ্ধ করবেন।
নিবেদক
সভাপতি-সম্পাদক
বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি
কক্সবাজার জেলা শাখা

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT