শিরোনাম :
স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে জেলা আনসারও ভিডিপি’র বর্ণাঢ্য পতাকা র‌্যালী অনুষ্ঠিত ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়াতে ইসলামপুরে তরুনীর আত্মহত্যা ঈদগাঁও রাবার ড্রাম পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির নিবার্চন সম্পন্ন সড়ক দূর্ঘটনায় মহেশখালী থানার পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু গণপরিবহনে হাফ ভাড়া চান চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরাও কক্সবাজারে বিমান উড্ডয়নের সময় ধাক্কাতে ২ টি গরুর মৃত্যু : বড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা চকরিয়ায় ব্যালট পেপার বিনষ্টের অভিযোগে মামলা: প্রিজাইডিং অফিসার কারাগারে খুরুশকুল এলাকায় অভিযানে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-আটক ১ কস্তুরাঘাট সংলগ্ন বাকঁখালী নদী এখন প্রভাবশালীর ব্যাক্তিগত জমি বদরখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নৌকা প্রার্থীর ভাগ্নেকে পিটিয়ে হত্যা

প্রান্তিক চাষী থেকে ১ লাখ মেট্রিকটন লবণ ক্রয়ের পরিকল্পনা

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, জানুয়ারী ২০, ২০২০
  • 105 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

মাহাবুবুর রহমান,
লবণের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নেবে জেলা প্রশাসন। অচিরেই লবণের বিষয়টি যাতে প্রধানমন্ত্রীর নজরে আসে এমন পদক্ষেপ নেওয়ার প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া লবণের ন্যায্যমুল্যর জন্য সরাসরি মাঠ থেকে ১ লাখ মেট্রিকটন অপরিশোধিত লবণ কিনবে সরকার। গতকাল গতকাল সোমবার (২০ জানুয়ারী) সকালে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের শহীদ এটিএম জাফর আলম সম্মেলন কক্ষে লবণ উৎপাদন, সরবরাহ ও বাজারদর বিষয়ে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন এ কথা বলেন।
আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন লবণের ন্যায্যমুল্য নিশ্চিত করতে সর্বোচ্চ চেষ্ঠা অব্যাহত থাকবে অচিরেই আমরা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে বিষয়টি অবহিত করতে চাই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কক্সবাজারবাসীকে জানিয়েছেন লবণ আমদানি করা হবে না। তিনি সবসময় চাষীদের পক্ষে। তিনি আরো বলেন সরকারিভাবে লবণ আমদানি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। তবু যারা ‘ব্যাক টু ব্যাক এলসি’র নামে আমদানি করছে তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়া দরকার। বিশেষ করে, লবণ মৌসুমে যাতে সোডিয়াম ক্লোরাইড আমদানি করতে না পারে সে বিষয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলকে সতর্ক থাকতে হবে।
এদিকে প্রান্তিক চাষীদের কাছ থেকে লবণ ক্রয় করার জন্য বিসিক এর পক্ষ থেকে অর্থ চাওয়া হয়েছে। অর্থ ছাড় পেলেই প্রান্তিক চাষিদের কাছ থেকে ন্যায্য মূল্যে লবণ কেনার প্রক্রিয়া শুরু করবে বিসিক। আর মাঠ থেকে লবণ কেনা শুরু হলে স্থিতিশীলতা আসবে, বাড়বে লবণের দাম। বন্ধ হবে সিন্ডিকেট বাণিজ্য ও সোডিয়াম ক্লোরাইড আমদানি। মতবিনিময় সভায় বেসিক কক্সবাজারের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) সৈয়দ আহামদ এ তথ্য জানান।
সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা বলেন, আমরা রাজনীতি করি মানুষের জন্য। দাম না পাওয়ায় মানুষ আন্দোলন করছে। যদি ন্যায় মূল্য নিশ্চিত করতে না পারি তা হলে সেটা আমাদেরই ব্যর্থতা। প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর সাথে জরুরি বৈঠক করে লবণের দাম নিশ্চিত করতে হবে।
মিল মালিক ও লবণ চাষীরা বলেন, একটি অসাধু ও অতি মুনাফালোভী লবণ সিন্ডিকেটের কারণে দেশের বাজার অস্থিতিশীল। সঠিক দাম পায় না প্রান্তিক লবণচাষীরা। লবণ শিল্প বিরোধী চিহ্নিত চক্রকে দমন করতে না পারলে আগামী দিনে লবণ শিল্প খাত আরো কঠিন অবস্থার মুখোমুখি হবে।
তাদের অভিযোগ, প্রতিদিনই ফিনিশ লবণ দেশে ঢুকছে। যা কম দামে বাজারে ছড়িয়ে দিচ্ছে ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট। উদ্বৃত্ত থাকার পরও প্রতি বছর লবণ আমদানি করা হয়। টেক্স ফ্রি সোডিয়াম সালফেট ছড়িয়ে দিচ্ছে বাজারে। যেভাবেই হোক আমদানি নিষিদ্ধ করে চাষীদের আস্থা ফেরাতে হবে।
এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা (সার্বিক), অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাং শাজাহান আলি, কুতুবদিয়ার ইউএনও জিয়াউল হক মীর, বিসিকের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) হাফিজুর রহমান, অডিটর মোঃ ইদ্রিস আলীসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।
লবণ মিল মালিক ও চাষিদের ওই সভায় কক্সবাজার চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আবু মোর্শেদ চৌধুরী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে লবণগুলো স্থানীয় মিল থেকে সরবরাহ করা যায় কি না বিবেচনায় আনার দাবী জানান।
বক্তব্য রাখেন -বাংলাদেশ লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি মো. নুরুল কবির, সহসভাপতি ফরিদুল ইসলাম খান, ইসলামপুর লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি শামসুল আলম আজাদ, মহেশখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরীফ বাদশা, মহেশখালীর সাজেদুল করিম, ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাস্টার আব্দুল কাদের, লবণ চাষী কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কায়ছার ইদ্রিস, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ, লবণ ব্যবসায়ী নুরুল আবছার, হাবিবুল্লাহ।

প্রাপ্ত তথ্যমতে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) কক্সবাজারের লবণ শিল্প উন্নয়ন প্রকল্প কার্যালয়ের ১০ ১০ জানুয়ারীর প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রতি মণ লবণের দাম গড়ে ১৯২ টাকা। যা কেজিতে পড়ছে প্রায় ৪ টাকা। ২০১৯-২০ মৌসুমে বিসিকের চাহিদা ১৮ লাখ ৪৯ হাজার মে.টন। লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৮ লাখ ৫০ হাজার মে.টন।
গত মৌসুমে (২০১৮-১৯) লক্ষ্যমাত্রা ১৮ লাখ ৫০ হাজার মে. টনের বিপরীতে উৎপাদন হয়েছে ১৮ লাখ ২৪ হাজার মে.টন। যা বিগত ৫৮ বছরের লবণ উৎপাদনের রেকর্ড ছাড়িয়েছে। কক্সবাজার জেলায় উৎপাদনযোগ্য লবণ জমির পরিমাণ ছিল ৬০ হাজার ৫৯৬ একর। চাষির সংখ্যা ২৯ হাজার ২৮৭ জন।

প্রান্তিক চাষী থেকে ১ লাখ মেট্রিকটন লবণ ক্রয়ের পরিকল্পনা
মাহাবুবুর রহমান,
লবণের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নেবে জেলা প্রশাসন। অচিরেই লবণের বিষয়টি যাতে প্রধানমন্ত্রীর নজরে আসে এমন পদক্ষেপ নেওয়ার প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া লবণের ন্যায্যমুল্যর জন্য সরাসরি মাঠ থেকে ১ লাখ মেট্রিকটন অপরিশোধিত লবণ কিনবে সরকার। গতকাল গতকাল সোমবার (২০ জানুয়ারী) সকালে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের শহীদ এটিএম জাফর আলম সম্মেলন কক্ষে লবণ উৎপাদন, সরবরাহ ও বাজারদর বিষয়ে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন এ কথা বলেন।
আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন লবণের ন্যায্যমুল্য নিশ্চিত করতে সর্বোচ্চ চেষ্ঠা অব্যাহত থাকবে অচিরেই আমরা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে বিষয়টি অবহিত করতে চাই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কক্সবাজারবাসীকে জানিয়েছেন লবণ আমদানি করা হবে না। তিনি সবসময় চাষীদের পক্ষে। তিনি আরো বলেন সরকারিভাবে লবণ আমদানি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। তবু যারা ‘ব্যাক টু ব্যাক এলসি’র নামে আমদানি করছে তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়া দরকার। বিশেষ করে, লবণ মৌসুমে যাতে সোডিয়াম ক্লোরাইড আমদানি করতে না পারে সে বিষয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলকে সতর্ক থাকতে হবে।
এদিকে প্রান্তিক চাষীদের কাছ থেকে লবণ ক্রয় করার জন্য বিসিক এর পক্ষ থেকে অর্থ চাওয়া হয়েছে। অর্থ ছাড় পেলেই প্রান্তিক চাষিদের কাছ থেকে ন্যায্য মূল্যে লবণ কেনার প্রক্রিয়া শুরু করবে বিসিক। আর মাঠ থেকে লবণ কেনা শুরু হলে স্থিতিশীলতা আসবে, বাড়বে লবণের দাম। বন্ধ হবে সিন্ডিকেট বাণিজ্য ও সোডিয়াম ক্লোরাইড আমদানি। মতবিনিময় সভায় বেসিক কক্সবাজারের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) সৈয়দ আহামদ এ তথ্য জানান।
সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা বলেন, আমরা রাজনীতি করি মানুষের জন্য। দাম না পাওয়ায় মানুষ আন্দোলন করছে। যদি ন্যায় মূল্য নিশ্চিত করতে না পারি তা হলে সেটা আমাদেরই ব্যর্থতা। প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর সাথে জরুরি বৈঠক করে লবণের দাম নিশ্চিত করতে হবে।
মিল মালিক ও লবণ চাষীরা বলেন, একটি অসাধু ও অতি মুনাফালোভী লবণ সিন্ডিকেটের কারণে দেশের বাজার অস্থিতিশীল। সঠিক দাম পায় না প্রান্তিক লবণচাষীরা। লবণ শিল্প বিরোধী চিহ্নিত চক্রকে দমন করতে না পারলে আগামী দিনে লবণ শিল্প খাত আরো কঠিন অবস্থার মুখোমুখি হবে।
তাদের অভিযোগ, প্রতিদিনই ফিনিশ লবণ দেশে ঢুকছে। যা কম দামে বাজারে ছড়িয়ে দিচ্ছে ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট। উদ্বৃত্ত থাকার পরও প্রতি বছর লবণ আমদানি করা হয়। টেক্স ফ্রি সোডিয়াম সালফেট ছড়িয়ে দিচ্ছে বাজারে। যেভাবেই হোক আমদানি নিষিদ্ধ করে চাষীদের আস্থা ফেরাতে হবে।
এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা (সার্বিক), অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাং শাজাহান আলি, কুতুবদিয়ার ইউএনও জিয়াউল হক মীর, বিসিকের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) হাফিজুর রহমান, অডিটর মোঃ ইদ্রিস আলীসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।
লবণ মিল মালিক ও চাষিদের ওই সভায় কক্সবাজার চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আবু মোর্শেদ চৌধুরী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে লবণগুলো স্থানীয় মিল থেকে সরবরাহ করা যায় কি না বিবেচনায় আনার দাবী জানান।
বক্তব্য রাখেন -বাংলাদেশ লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি মো. নুরুল কবির, সহসভাপতি ফরিদুল ইসলাম খান, ইসলামপুর লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি শামসুল আলম আজাদ, মহেশখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরীফ বাদশা, মহেশখালীর সাজেদুল করিম, ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাস্টার আব্দুল কাদের, লবণ চাষী কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কায়ছার ইদ্রিস, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ, লবণ ব্যবসায়ী নুরুল আবছার, হাবিবুল্লাহ।

প্রাপ্ত তথ্যমতে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) কক্সবাজারের লবণ শিল্প উন্নয়ন প্রকল্প কার্যালয়ের ১০ ১০ জানুয়ারীর প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রতি মণ লবণের দাম গড়ে ১৯২ টাকা। যা কেজিতে পড়ছে প্রায় ৪ টাকা। ২০১৯-২০ মৌসুমে বিসিকের চাহিদা ১৮ লাখ ৪৯ হাজার মে.টন। লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৮ লাখ ৫০ হাজার মে.টন।
গত মৌসুমে (২০১৮-১৯) লক্ষ্যমাত্রা ১৮ লাখ ৫০ হাজার মে. টনের বিপরীতে উৎপাদন হয়েছে ১৮ লাখ ২৪ হাজার মে.টন। যা বিগত ৫৮ বছরের লবণ উৎপাদনের রেকর্ড ছাড়িয়েছে। কক্সবাজার জেলায় উৎপাদনযোগ্য লবণ জমির পরিমাণ ছিল ৬০ হাজার ৫৯৬ একর। চাষির সংখ্যা ২৯ হাজার ২৮৭ জন।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT