শিরোনাম :
কক্সবাজারে বিমান উড্ডয়নের সময় ধাক্কাতে ২ টি গরুর মৃত্যু : বড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা চকরিয়ায় ব্যালট পেপার বিনষ্টের অভিযোগে মামলা: প্রিজাইডিং অফিসার কারাগারে খুরুশকুল এলাকায় অভিযানে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-আটক ১ কস্তুরাঘাট সংলগ্ন বাকঁখালী নদী এখন প্রভাবশালীর ব্যাক্তিগত জমি বদরখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নৌকা প্রার্থীর ভাগ্নেকে পিটিয়ে হত্যা ঈদগাঁওতে শীতমৌসুমে গরম কাপড় কিনতে ক্রেতাদের ভীড় চকরিয়ায় ১০ ইউপিতে আ‘লীগ ৫ স্বতন্ত্র ৫ মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যাচেষ্টা, মহেশখালীর মেয়রসহ ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা পিএমখালীতে ইয়াবা সহ আটক হোসেনের সিন্ডিকেট এখনো অধরা নাফ নদ থেকে ১ কেজি আইসসহ পাচারকারী আটক

পেকুয়ায় ত্রিভূজ প্রেমের বলি দুই প্রেমিক-প্রেমিকা

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, অক্টোবর ১৬, ২০২১
  • 137 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

কক্স৭১
ব্যবসায়ী রিদুয়ানুল হকের সাথে প্রেম ছিলো এনজিও কর্মী রোজিনা বেগমের। তাঁদের প্রেম বিয়ে পর্যন্ত গড়ানোর আগেই মাঝখানে চলে আসে তৃতীয় পক্ষ রেজাউল করিম। সময়ের ব্যবধানে প্রেমিকা রোজিনাও দ্বিতীয়বার মন দিয়ে বসে রেজাউলকে। বিয়ের পথেই এগোচ্ছিলেন রেজাউল-রোজিনা জুটি।
এ ব্যাপারটি মানতে পারছিলোনা প্রথম প্রেমিক রিদুয়ান। প্রতিবাদী প্রেমিক রিদুয়ান ক্ষোভে বশবর্তী হয়ে রোজিনার সাথে তাঁর ঘনিষ্ঠ মুহুর্তের ছবি প্রকাশ করে দেয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে। এতেই বাঁধে বিপত্তি।
রোজিনাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান দ্বিতীয় প্রেমিক রেজাউল। রাগে অপমানে আত্মহত্যা করেন প্রেমিকা রোজিনা! প্রেমিকা রোজিনার আত্মহত্যার খবর পেয়ে প্রথম প্রেমিক রিদুয়ানও করেন আত্মহনন। ত্রিভুজ প্রেমের এই গল্প কোন সিনেমার নয়। কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার বাস্তব ঘটনা এটি।
শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বিষাক্ত ট্যাবলেট (ইদুরের বিষ) খেয়ে আত্মহত্যা করেন রোজিনা বেগম (২০)। এই খবর পেয়ে আধাঘন্টা পরে একইভাবে আত্মহত্যা করেন রিদুয়ানুল হক (২২)। নিহত রোজিনা বেগম উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের পেকুয়ারচর এলাকার নুরুল বশরের মেয়ে এবং রিদুয়ানুল হক পার্শ্ববর্তী ইউনিয়ন মগনামার মটকাভাঙ্গা এলাকার মৃত ছৈয়দ নুরের ছেলে।রোজিনা একটি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থায় চাকরি করতেন। রিদুয়ান ছিলেন স্থানীয় সোনালী বাজারের ব্যবসায়ী। রেজাউল করিম একই উপজেলার সদর ইউনিয়নের নন্দীর পাড়া এলাকার মৃত ফজল করিমের ছেলে। রেজাউল উজানটিয়া কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরত আছেন।রোজিনার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উজানটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম শহিদুল ইসলাম চৌধুরী।স্থানীয় বাসিন্দা ও নিহত রোজিনার স্বজনরা জানান, রোজিনা বেগমের সাথে পেকুয়া সদর ইউনিয়নের মেহেরনামা এলাকার রেজাউল করিম নামের এক যুবকের বিয়ে ঠিক হয়।
আগামী সপ্তাহে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু চূড়ান্ত মুহুর্তে এসে বরপক্ষ রোজিনার সাথে পাশের গ্রামের রিদুয়ানের সম্পর্কের বিষয়টি জানতে পারে। এই ইস্যু ধরে বিয়ে করতে অপারগতা জানান রেজাউল।
এতে রাগে অপমানে শুক্রবার সকালে রোজিনা বিষাক্ত ট্যাবলেট খায়। তাকে পেকুয়ার একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
রিদুয়ানের ভাই মো. হোছাইন বলেন, রিদুয়ানের সাথে একটা মেয়ের সমপর্কের ব্যাপারে জানতাম। এই মেয়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে সেও বিষাক্ত ট্যাবলেট খেয়ে ফেলে। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয়।
এদিকে অপর রেজাউল করিমের সাথে বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। তাঁর ভাই নেজাম উদ্দিন জানান, উজানটিয়ার একটা মেয়ের সাথে রেজাউলের বিয়ে ঠিক হয়েছিলো। পরে বিয়েটি সে নিজেই ভেঙে দেয়।
এব্যাপারে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT