শিরোনাম :
স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে জেলা আনসারও ভিডিপি’র বর্ণাঢ্য পতাকা র‌্যালী অনুষ্ঠিত ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়াতে ইসলামপুরে তরুনীর আত্মহত্যা ঈদগাঁও রাবার ড্রাম পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির নিবার্চন সম্পন্ন সড়ক দূর্ঘটনায় মহেশখালী থানার পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু গণপরিবহনে হাফ ভাড়া চান চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরাও কক্সবাজারে বিমান উড্ডয়নের সময় ধাক্কাতে ২ টি গরুর মৃত্যু : বড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা চকরিয়ায় ব্যালট পেপার বিনষ্টের অভিযোগে মামলা: প্রিজাইডিং অফিসার কারাগারে খুরুশকুল এলাকায় অভিযানে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-আটক ১ কস্তুরাঘাট সংলগ্ন বাকঁখালী নদী এখন প্রভাবশালীর ব্যাক্তিগত জমি বদরখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নৌকা প্রার্থীর ভাগ্নেকে পিটিয়ে হত্যা

পিএমখালীতে বয়স্ক ও বিধবা ভাতার নামে টাকা নেওয়া বিষয়ে শাহজাহানের বিবৃতি

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, মে ৫, ২০২০
  • 109 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

পিএমখালীতে বয়স্ক ও বিধবা ভাতা নিতে ২ হাজার টাকা করে নেওয়া বিষয়ে এক বিবৃতি দিয়েছেন ডিককুল এলাকার শাহজাহান। তিনি গনমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলেন,আমি মোঃ শাহজাহান পিতা নাজির সওদাগর সাং দক্ষিণ ডিককুল পিএমখালী। আমি দীর্ঘ বছর ধরে সৌদি আরবে থাকি প্রায় ৪ মাস আগে দেশে ছুটিতে এসেছি। আমি দেশের নিয়ম কানুন সম্পর্কেতত বেশি অবগত নই। কিছু দিন আগে আবদুর রশিদ মাস্টার প্রকাশ রশিদ মাস্টার আমার কাছে এসে বলে এলাকার গরীব অসহায় মহিলা থাকলে তাদের আইডি কার্ড নিয়ে তাদের নাম বিধবা এবং বয়স্ক ভাতার তালিকায় দিবে এতে তারা প্রতি মাসে অনেক টাকা পাবে। কিন্তু তার বিপরীতে রশিদ মাস্টারকে ২৫০০ টাকা করে দিতে হবে। আমি সরল বিশ^াষে গরীব মানুষের উপকারের কথা চিন্তা করে কয়েকজন থেকে ২ হাজার টাকা করে নিয়ে আইডি কার্ড সহ রশিদ মাস্টারকেদিয়েছি। কিন্তু পরে বিষয়টি জানাজানি হলে আমি বুঝতে পারি রশিদ মাস্টার আমাকে ব্যবহার করে সম্পূর্ন প্রতারণা করেছে। পরে পিএমখালী ইউনিয়নের সম্মানীত চেয়ারম্যান জনাব আবদুর রহিম মাস্টার এসে আমাদের সামনা সামনি করে সব টাকা যাদের কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে তাদের ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করে। সত্যি কথা হচ্ছে আমি প্রবাসে থাকি তাই ভালমন্দ যাচাই না করে সরল রশিদ মাস্টারকে বিশ^াষ করে মানুষের উপকার করতে চেয়েছিলাম। সবাই খোঁজ নিলে জানতে পারবে আমাদের পারিবারিক এবং সামাজিক অবস্থা সর্ম্পকে কারো কাছ থেকে টাকা নিয়ে খাওয়ার মত অবস্থা আমাদের নেই বরং প্রতি মাসে বিপুল টাকা আমরা দান করি। যাই হওক আমি অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী এবং উক্ত বিষয়ে আর কোন ভুলবুঝাবুঝির অবকাশ না রাখার জন্য প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি বিনীত আহবান করছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT