শিরোনাম :
উখিয়ার রোহিঙ্গা ছৈয়দ নুরের এনআইডি বাতিল করতে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে কলাতলীতে হোটেল দখলে নিতে তৎপর প্রতারক চক্র অবাধ তথ্য প্রবাহ দূর্নীতি প্রতিরোধে সহায়ক ভুমিকা রাখতে পারে : সুজনের আলোচনা সভায় বক্তারা ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেইল করতেন বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই নারী শিক্ষক ২০ হাজার ইয়াবা সহ আটক ১ জেলার বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসায় কর্মরত রোহিঙ্গাদের সরকারি সুযোগ সুবিধা বাতিলের দাবীতে আবেদন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীর হাতে অপহৃত ৩ বাংলাদেশীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব নাফ নদীতে অজ্ঞাত শিশুর লাশ উদ্ধার ১০ হাজার ইয়াবা সহ আটক ২ আইনজীবি হলেন স্বামী স্ত্রী জসিম উদ্দিন ও মর্জিনা আক্তার

পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে দুই জনকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, মে ২৮, ২০২১
  • 232 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

কক্স৭১
কক্সবাজারের সদর উপজেলা ঝিলংজায় পাহাড় কেটে স্থাপনা নিমার্ণকালে দুই জনকে হাতেনাতে আটক করে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টার দিকে ঝিলংজার পশ্চিম হাজ¦ী পাড়া এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নু-এমং মারমা মং এ অভিযান চালান। অভিযানে পাহাড় কেটে অবৈধভাবে স্থাপনা নির্মাণের অপরাধে পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে মোহাম্মদ সাজ্জাদ ও মোঃ শেফায়েত কবির নামে দুই ব্যক্তিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং সরকারী জায়গায় অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।
ভ্রাম্যমান আদালতের পক্ষ থেকে জরিমানা দেওয়া মোহাম্মদ সাজ্জাদ হলেন ঝিলংজা পশ্চিম পাড়ার হাফেজ আনোয়ারের ছেলে এবং মোঃ শেফায়েত কবির হলেন পিএম খালীর মৃত নুরুচ্ছবির ছেলে। তারা দুইজন’ই পাহাড় কেটে তৈরী করা আমেনা বেগম নামে এক নারী’র ভবণ নির্মাণের কাজ করছিলেন। আমেনা বেগম হলেন পেকুয়া উপজেলার টৈটং এর মৃত বদিউল আলমের মেয়ে। যদিও তিনি কক্সবাজার শহরে অবস্থান করেন।
এলাকাবাসির দেওয়া তথ্যে জানা যায়, আমেনা বেগম চিহ্নিত পাহাড় দখলবাজ নামে পরিচিত। তিনি প্রভাবশালী হওয়ায় তার বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার শাহস পায়না। তিনি প্রতিবাদকারীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দেন প্রশাসনের সাথে ভাল সর্ম্পক আছে বলে।
অভিযান পরিচালনাকারী নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সদর নু-এমং মারমা মং জানান, এলাকাবাসীর দেওয়া খবরের ভিত্তিতে পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে ওই এলাকায় অভিযান চালায়। সরকারি পাহাড় কেটে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগে মোহাম্মদ সাজ্জাদ ও মোঃ শেফায়েত করিম নামে দুই ব্যাক্তিকে পরিবেশ সংরক্ষন আইনে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ওই সময় নির্মাণ কাজ চলা ভবনের মালিক আমেনা বেগমকে একাধিকবার ফোন করা হলেও আসতেছেন বলে তিনি ঘটনাস্থলে আসেননি। অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT