শিরোনাম :
দেশের বিভিন্ন স্থানে দূর্গা পূজায় হামলা প্রতীমা ভাংচুরের প্রতিবাদে কক্সবাজারে মানববন্ধন বিদেশে যেতে চায় মুহিবুল্লাহ‘র পরিবার পাহাড়তলীতে বেলালের গ্যারেজে আড়ালে চলছে ইয়াবা ব্যবসা কাপ্তাইয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীকে গুলি করে হত্যা মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা আর থাকছে না সৌদিতে বিনা শুল্কে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানীর নির্দেশ দিলেন অতিরিক্ত বানিজ্য সচিব পাহাড়তলীতে গ্যারেজের আড়ালে চলছে ইয়াবা ব্যবসা টেকনাফ সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি ইয়াবা নিয়ে সহযোগি সহ ঢাকায় আটক পাঁচ কেজি আইসসহ টেকনাফ সিন্ডিকেট প্রধান ঢাকায় আটক পেকুয়ায় ত্রিভূজ প্রেমের বলি দুই প্রেমিক-প্রেমিকা

পাহাড়তলীতে লুট করে আনা ইয়াবার টাকা এখনো ভাগভাটোয়ারা চলছে

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ৯, ২০২১
  • 316 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে
?????????????????????????????????????????????????????????

মাহাবুবুর রহমান.
শহরের পাহাড়তলীতে সিএনজি চালক কর্তৃক লুট করে আনা ইয়াবার টাকা এখনো ভাগভাটোয়ার চলছে। ৭ ফেব্রæয়ারী রাতে সেই পলাতক সিএনজি চালক কালু ফিরে আসলে তার কাছ থেকে আবারো ইয়াবার টাকা ভাগ নিয়েছে স্থানীয় জমির সহ আরো কয়েকজন । স্থানীয়দের দাবী কালুর সেই ইয়াবা এবং এবং ইয়াবা বিক্রির টাকা এখনো কয়েকজনের কাছে জমা রয়েছে তাই দ্রæত তাদের আইনের আওতায়আনার দাবী জানান। জানা গেছে কয়েকদিন আগে পাহাড়তলী এলাকার সিএনজি চালক ইয়াছিন প্রকাশ কালু বেশ কিছু ইয়াকা আনে পরে সেই ইয়াবা বিষয়ে স্থানীয় কয়েকজনকে জানালে জাকের,তৌহিদ সহ কয়েকজন তা লুট করে নিয়ে যায়।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,গত কয়েকদিন ধরে এলাকায় ইয়াবা লুট করাএবং তার টাকা ভাগাভাগি নিয়ে বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচনা চলছে এবং অনেকে টাকার ভাগ পেয়েছে আবার অনেকে টাকার ভাগের জন্য দৌড়াচ্ছে বলে জানা গেছে। এলাকাবাসীর দেওয়া তথ্য মতে পাহাড়তলী বলখেলার মাঠে পাশে তৌহিদের বাসায় ভাড়া টিয়ে সিএনজি চালক কালু কয়েকদিন আগে প্রায় এক ব্যাগ ইয়াবা নিয়ে আসে। স্থানীয়দের কাছে কালুর দেওয়া ভাষ্য মতে সে টেকনাফ থেকে ভাড়া নিয়ে আসার পথে এক যাত্রী তার গাড়ীতে একটি ব্যাগ ফেলে পালিয়ে যায় সেটা সেই বাড়িতে নিয়ে আসে। প্রথমে সে বাড়িতে তা লুকিয়ে রাখলেও পরে তা বিক্রি করার জন্য তার বাড়ির মালিক তৌহিদ এবং এলাকার ইয়াবা কারবারী নাজুর ছেলে জাকেরের সাথে যোগাযোগ করে। পরে জাকের সহ কয়েকজন মিলে বিপুল পরিমান ইয়াবা খুচরা পর্যায়ে বিক্রি করে। তা জানাজানি হলে এলাকার আরো অনেকে লুট করা ইয়াবার টাকার ভাগভাটোয়ারা নিতে আরো কিছু উঠতি বয়সের ইয়াবা কারাবারীরা চাপ দেয় তখন জাকের তাদের দায়িত্ব নেয়। পরে এলাকার পুলিশের সোর্স হিসাবে পরিচিত খুনি মোহাম্মদ হোসনের ছেলে বিন্ডি জসিম সেই ইয়াবার টাকার ভাগ নেয়। পরে বিন্ডি জসিম পুলিশকে এলাকায় ঘুরিয়ে নিয়ে গেছে বলে জানা গেছে। তবে এখনো ঘটনার সাথে জড়িত কেউ আটক হয়নি। এদিকে মূল ইয়াবা লুটকারী কালুর ঘরে গিয়ে দেখা গেছে সে কয়েকদিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। অবশ্য তৌহিদ,জাকের,বিন্ডি জসিম সহ অনেকে এখনো এলাকায় ঘুরছে। তাই বাকি ইয়াবা উদ্ধার এবং ঘটনার আসল রহস্য উদঘাটনের দাবী জানানএলাকাবাসী। এদিকে ৭ ফেব্রæয়ারী জমির তার ডাকে আবারো ঘরে আসে কালু পরে তার কাছ থেকে এক লাখ টাকা নিয়ে যায় । এদিকে এলাকাবাসীর দাবী কালু ইয়াবা এবং ইযাবা বিক্রির টাকা এখনো কয়েক জনের কাছে জমা আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT