শিরোনাম :
স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে জেলা আনসারও ভিডিপি’র বর্ণাঢ্য পতাকা র‌্যালী অনুষ্ঠিত ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়াতে ইসলামপুরে তরুনীর আত্মহত্যা ঈদগাঁও রাবার ড্রাম পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির নিবার্চন সম্পন্ন সড়ক দূর্ঘটনায় মহেশখালী থানার পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু গণপরিবহনে হাফ ভাড়া চান চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরাও কক্সবাজারে বিমান উড্ডয়নের সময় ধাক্কাতে ২ টি গরুর মৃত্যু : বড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা চকরিয়ায় ব্যালট পেপার বিনষ্টের অভিযোগে মামলা: প্রিজাইডিং অফিসার কারাগারে খুরুশকুল এলাকায় অভিযানে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-আটক ১ কস্তুরাঘাট সংলগ্ন বাকঁখালী নদী এখন প্রভাবশালীর ব্যাক্তিগত জমি বদরখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নৌকা প্রার্থীর ভাগ্নেকে পিটিয়ে হত্যা

ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিনতাইকারীদের গডফাদাররা

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, জানুয়ারী ১২, ২০২০
  • 128 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

মাহাবুবুর রহমান.
কক্সবাজারে ছিনতাইকারী নিয়ন্ত্রনে কাজ করছে আইনশৃংখলা বাহিনি তবে তাদের প্রকৃত গডফাদাররা সব সময় রয়ে যায় অধরায় ফলে নিয়ন্ত্রন করা যাচ্ছেনা ছিনতাই সহ নানান অপরাধ। রাজনৈতিক পরিচয় এবং কিছু প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় গডফাদারদের কারনেই শহরে নতুন নতুন ছিনতাইকারী তৈরি হচ্ছে বলে মনে করেন স্থানীয়রা। তাই ছিনতাইকারীদের সাথে সম্পৃক্ত তাদের গডফাদারদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছে সচেতন মহল।
কক্সবাজার পর্যটন শহর হওয়াতে সব সময় আলোচনায় থাকে ছিনতাইকারী নিয়ে। প্রায় সময় খবরের শিরুনামও হয় ছিনতাই ঘটনা। গত বছর ছিনতাইকারীদের হাতে নিহত হয় পুলিশ সদস্য,আহত হয়েছে বহু পর্যটক। সম্প্রতী ছিনতাইকারীদের আক্রমনে কলেজ ছাত্রের হাত পায়ের রগ কেটে দেওয়ার ঘটনায় বেশ আলোচনায় আসে শহরে ছিনতাই ঘটনা। এতে নড়েচড়ে বসে আইনশৃংখলা বাহিনি। চলতি সময়ে হার্ডলাইনে গিয়ে বন্দুকযুদ্ধে ছিনতাইকারী নিহত এবং বহু ছিনতাইকারী আটক এবং এলাকাছাড়া হওয়ায় অনেকটা সস্তি এসেছে সাধারণ মানুষের মাঝে তবে তাদের গডফাদারদের কেউ আইনের আওতায় না আসায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে সাধারণ মানুষ।
হোটেল ব্যবসায়ি শরাফত উল্লাহ বলেন,হোটেল মোটেলজোনকে ঘিরে বেশি সক্রিয় থাকে ছিনতাইকারীরা। আমার জানা মতে এখানে প্রতিটি সড়কে এবং এলাকা ভিত্তিক ছিনতাইকারী আছে আর যাদের নিয়ন্ত্রন করে কয়েকজন গডফাদার। প্রত্যেকটি ছিনতাই বা অপরাধের পরে সেই সব গডফাদারদের আশ্রয়ে চলে যায় ছিনতাইকারীরা। পরে সেখানে দিয়ে লুটের মাল ভাগবাটোয়ারা হয়। সত্যি কথা বলতে গেলে সে সব গডফাদারদের রয়েছে রাজনৈতিক এবং সামাজিক পরিচয় আছে তারা মূলত নিজেদের অপরাধ কর্মকান্ড এবং চাঁদাবাজী ধরে রাখতে ছিনতাইকারীদের লালন পালন করে।
এস.আলম বাস সার্ভিসের কর্মকর্তা নাজিম উদ্দিন বলেন,ভোরবেলা গাড়ী ধরার জন্য যাত্রীরা শহরের লালদিঘির পাড়ে আসে সেখানে প্রায় সময় কিছু ছিনতাইকারী ঘুরাফেরা করে তারা সুযোগ পেলেই যাত্রীদের কাছ থেকে ব্যাগ টাকা পয়সা ছিনতাই করে এবং প্রায় সময় পালংকী হোটেলের রোড় দিয়ে দৌড় দেয় এবং নিদমহলের পাশের গলি দিয়ে পালিয়ে যায়। সত্যি কথা বলতে বহুবার ছিনতাইকারীদের হাতে নাতে আটক করা হলেও তাদের জন্য তদবির করতে বা ছাড়িয়ে নিতে আসে কিছু স্থানীয় চিহ্নিত ব্যাক্তি। এরাই মূলত এসব ছিনতাইকারীর গডফাদার।
লাইট হাউজ এলাকার ব্যবসায়ি নবিউল আলম বলেন, এখানে বেশ কয়েকটি ছিনতাইকারী গ্রুপ আছে। যারা বিভিন্ন সময় সরকারি দলের মিটিং মিছিলের আগে থাকে। এবং কারো খাস জমি দখল করা,দোকান থেকে চাঁদা নেওয়া এবং নালা দখল করে দোকান করা,রাস্তার উপর পানের দোকান করা এবং মাদক ব্যবসা পরিচালনা করাই এদের কাজ। সত্যি কথা বলতে তাদের পেছনে এখানকার একজন জনপ্রতিনিধি এবং তার আরেক ভাই সরাসরি জড়িত। আর কিছু আইনশৃংখলা বাহিনির লোকও তাদের সাথে মিলিত থাকে তাই ছিনতাই সহ নানান অপরাধ নিয়ন্ত্রন করা যাচ্ছেনা।
এ ব্যপারে কক্সবাজার হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম সিকদার বলেন,ছিনতাই ঘটনার জন্য কক্সবাজারের বদনাম হচ্ছে এটা চরম সত্য। ছিনতাইকারী নিয়ন্ত্রনে প্রশাসন মাঝে মধ্যে অভিযান জোরদার করলেও সেখানে প্রকৃত ছিনতাইকারীরা ধরা পড়েনা। আর তাদের গডফাদাররাতো কখনোই ধরা পড়েনা ফলে নতুন ছিনতাইকারীর আমদানী হয়। আমি মনে করি প্রশাসনও জানে কারা আসল গডফাদার তাদের আইনের আওতায় আনা গেলে অনেক কিছু নিয়ন্ত্রনেআসবে।
এ ব্যপারে কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন বলেন,ছিনতাইকারী দমনে পুলিশ সর্বোচ্চ কাজ করছে একই সাথে তাদের নিয়ন্ত্রক বা গডফাদারদের সনাক্ত করা হয়েছে অনেকের নাম আমাদের কাছে আছে সে অনুযায়ী ইতি মধ্যে অনেক ব্যবস্থা হয়েছে। সামনে আরো বড় ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT