টেকনাফে বিজিবি-বিজিপি পতাকা বৈঠকঃ ইয়াবা, সন্ত্রাস ও চোরাচালান রোধে ঐক্যমত

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৯
  • 212 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

 

আব্দুল্লাহ মনির, টেকনাফ:

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষীবাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) রিজিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ১১ টায় টেকনাফে সমুদ্র সৈকত সংলগ্ন ‘সেন্ট্রাল রিসোর্ট’ এর সম্মেলন কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বিজিবি ও বিজিপির রিজিয়ন কমান্ডার পর্যায়ের পতাকা বৈঠকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানা গেছে। বিশেষ করে ইয়াবা প্রতিরোধ, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অবস্থান, মানবপাচার রোধ ও দুই দেশের মধ্যকার সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার ব্যাপারে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। প্রায় সাত ঘন্টাব্যাপী দুই দেশের সীমান্তরক্ষীবাহিনীর পতাকা বৈঠক শেষে সন্ধ্যা ৬ টায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) কক্সবাজার রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল সাজেদুর রহমান বিজিপি’র প্রতিনিধি দলের উপস্থিতিতে প্রেস ব্রিফিং করেন ।

প্রেস ব্রিফিংয়ে বিজিবি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেয়া ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজেদুর রহমান বলেন, অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে দুই দেশের প্রতিনিধি দলের পতাকা বৈঠকটি শেষ হয়েছে। বৈঠকে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনার মাধ্যমে উভয় দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী যুগোপযোগী সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পেরেছি।

তিনি জানান, ইয়াবার আগ্রাসন ঠেকাতে বাংলাদেশের পাশাপাশি মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) নিজেদের সীমান্তে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে জানিয়েছেন। ইতোমধ্যে তারাও (বিজিপি) মিয়ানমার সীমান্তে ইয়াবার কয়েকটি চালান আটক করেছেন বলে আমাদের ব্যক্ত করেছেন। তারা বৈঠকে আমাদের আরো আশ্বস্থ করেছেন, ইয়াবা প্রতিরোধে তারা বাংলাদেশকে যেকোন ধরনের সহযোগীতা করবে।

বিজিবি-বিজিপি পতাকা বৈঠকে সীমান্তে সন্ত্রাসী তৎপরতা প্রতিহত করতে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী একত্রে কাজ করবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া দুই দেশের সীামন্তরক্ষীবাহিনীর মধ্যে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখতে খেলাধূলা ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতা আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়। তবে বিজিবি-বিজিপির এ পতাকা বৈঠকে রোহিঙ্গাদের বিষয়ে কোন আলোচনা হয়নি বলে জানান বিজিবি কর্মকর্তা।

এর আগে বৈঠকে অংশ নিতে মিয়ানমারের ১ নম্বর বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মিং টু এর নেতৃত্বে সে দেশের ১৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল সকাল সাড়ে ৯ টায় টেকনাফ-মিয়ানমার ট্রানজিট ঘাটে পৌঁছান। সেখানে থেকে সেন্ট্রাল রিসোর্টে বৈঠকে যোগ দেয়।

বৈঠকে বিজিবির পক্ষে কক্সবাজার রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজেদুর রহমান ছাড়াও টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. ফয়সল হাসান খান, ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল আলী হায়দার আজাদ, রামু সেক্টর ৩০ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল জাহিদুর রহমান ও ২ বিজিবির অতিরিক্ত পরিচালক (অপারেশন) মেজর রুবায়ৎ কবির উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, সর্বশেষ চলতি বছর ২১ জানুয়ারী মিয়ানমারের মংডু টাউনশিপে এ ধরনের রিজিয়ন পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিলো। সেই সময় কক্সবাজার রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আইনুল মোর্শেদ খান পাঠান’র নেতৃত্বে ১০ সদস্যের বিজিবি প্রতিনিধি দল অংশ নিয়েছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT