ঝিলংজায় মেম্বারের হামলায় বৃদ্ধ আহত

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, মে ১৬, ২০২২
  • 84 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

শাহী কামরানঃ খরুলিয়াতে রসিদ মেম্বার কর্তৃক এক বৃদ্ধকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ ১৫ মে (রবিবার) খরুলিয়া বাজারে ঝিলংজার ৮নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার আব্দু রসিদ ও তার ছোট ভাই আরফাত সহ আরো বেশ কয়েকজন মিলে এক বৃদ্ধকে এ্যালোপাতাড়ি মারধর করে মারাত্মক জখম করে বলে জানান আহতের পরিবার।
আহত নাজির হোসাইন (৬৫) কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ঘাটপাড়া এলাকার মৃত লাল মিয়ার পুত্র।

আহত নাজির হোসাইন অভিযোগ করে বলেন, আমি খরুলিয়া বাজারে আমার প্রতিষ্ঠান লাল গোলাপ কমিউনিটি সেন্টারে অবস্থান করছিলাম। হঠাৎ রসিদ মেম্বার ও তার ছোট ভাই আরফাত ও আবছার নামে একজন মোটর সাইকেলে করে এসে আমাকে এ্যালোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে দা দিয়ে আমাকে জখম করে। ঘটনাস্থলে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। পরে ঘটনাস্থল হতে আহমদ রসিদ ও নাছির নামে দুইজন ব্যক্তি আহত অবস্থাই উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।

তারা কেনো আপনাকে মারতে গেলো পূর্বের কোন শত্রুতা আছে কি না জিজ্ঞেস করলে প্রতি উত্তরে তিনি আরো বলেন, পূর্বের শত্রুতা আছে। তবে, রসিদ মেম্বার নির্বাচনি সহিংসতার জের ও তার যাকাতের টাকা আত্মসাত এমনকি বিকাশে শিক্ষক সমাজ হতে চাঁদাবাজির পর সে উন্মাদ হয়ে গেছে।
তিনি বর্তমানে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। উক্ত ঘটনায় কক্সবাজার সদর মডেল থানায় তার ছেলে বাদি হয়ে একটি এজাহার দায়ের করবেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে আব্দু রসিদ মেম্বারের ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারে বেশ কয়েকবার যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি। ক্ষুধে বার্তা পাঠানোর পরও কোন প্রতি উত্তর না আসায় উক্ত প্রতিবেদন লিখার আগে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ সেলিম মুঠোফোনে জানান, এই রকম বৃদ্ধকে মারধরের কোন অভিযোগ এখনো আসেনি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, এই আব্দু রসিদ মেম্বারের বিরুদ্ধে যাকাতের ৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগের পর পর এই রসিদ মেম্বারের একটি সিন্ডিকেট ঘটিয়েছে ভয়ঙ্কর বিকাশ প্রতারনাও। হত দরিদ্রদের জন্য আসা যাকাতের ফান্ড হতে ২ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠে আব্দু রসিদ মেম্বারের বিরুদ্ধে। যা ব্যাপকভাবে কক্সবাজার জেলা জুড়ে সমালোচনায় পড়েন মেম্বার রসিদ। সমালোচনায় পড়ে পরদিন ২হাজার টাকা করে ফের যাকাত দেন এই রসিদ মেম্বার যা শাঁক দিয়ে মাছ ঢাকার মত।

তার রেশ কাটতে না কাটতে গত ৫ মে (বৃহস্পতিবার) রসিদ মেম্বার ল্যাপটপ দেওয়ার আশা দিয়ে হাতিয়ে নিয়েছেন বিকাশে লাখ টাকা এমনটাই অভিযোগ করেছে ভোক্তভোগীরা। ফাঁদে ফেলেছেন ৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একাধিক শিক্ষকদের।

গত ৫ মে রসিদ মেম্বার ফোন দিলেন বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান কে। বললেন, ইউএনও স্যার আপনাকে একটা ফোন করতে বলেছেন এই বলে একটি নাম্বার দিলেন তিনি। যথারীতি তার কথার উপর ভরসা রেখে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ফোন দিলেন জনপ্রতিনিধির দেওয়া কথিত ভুয়া ইউএনওর নাম্বারে।

ওপার থেকে কথিত ভুয়া ইউএনও বললেন, আপনার নামে একটি ল্যাপটপ আসছে চাইলে সহকারী শিক্ষকরাও নিতে পারবেন। তবে প্রতি ল্যাপটপের জন্য সরকারি খরচ দিতে হবে ৫ হাজার ৩শত টাকা। পরে ভোক্তভোগী শিক্ষকরা রসিদ মেম্বার কে ফোন করে বিষয়টি জানান এবং টাকা বিকাশে দেওয়া উচিত হবে কি না জিজ্ঞেস করেন এতে রসিদ মেম্বার টাকা দেওয়ার সুপারিশ করেন। যা প্রতিবেদকের হাতে একটি কল রেকর্ড রয়েছে। এভাবে একদিনে বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে উক্ত সিন্ডিকেট হাতিয়ে নিলেন লাখ টাকা।

এদিকে, নাম জানাতে অনিচ্ছুক একজন সরকার দলীয় নেতা জানান, রক্ষক যদি ভক্ষক হয় আসলে সাধারন জনগন খুবি অসহায়। একজন জনপ্রতিনিধি যাকাতের টাকা মেরে দেওয়া, বিকাশে প্রতারনা শেষমেষ একজন বৃদ্ধকে মারধর করা খুবি ন্যাক্কারজনক ঘটনা। প্রশাসন এসব নোংরা জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করুক এটা সময়ের দাবি।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT