জেলা প্রশাসকের উদ্দ্যোগঃডিজিটাল কন্টেন্টে ক্লাস

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, এপ্রিল ১১, ২০২০
  • 55 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

মাহাবুবুর রহমান.
করোনা পরিস্থিতির কারনে সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ আছে ১৭ মার্চ থেকে শুরু করে অদ্যবদি সারা দেশের সাথে সংগতি রেখে সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্টান সহ বন্ধ আছে কোচিং এমনকি বাসাবাড়ির প্রাইভেট কোচিং ও বন্ধ। তাই শিক্ষার্থীদের ক্ষতি কিছুটা হলেও পূষিয়ে নিতে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক ডিজিটাল কন্টেন্টের মাধ্যমে ক্লাস করানো ব্যবস্থা নিয়েছে। ইতি মধ্যে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসকের নিজস্ব ফেইসবুকে পেইজে একটি ক্লাস শেয়ার করেন যাতে দেখা যাচ্ছে কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মানিক চন্দ্র দে ক্লাস নিচ্ছেন। পরে জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন এক ভিডিও বার্তায় জেলার শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশে বলেন,করোনা পরিস্থিতির কারনে এখন শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ আছে তাই শিক্ষার্থীদের এই অসুবিধার করা চিন্তা করে তুমাদের প্রিয় শিক্ষকদের ক্লাস আমরা ডিজিটাল কন্টেন্টের মাধ্যমে প্রচারের ব্যবস্থা করেছি। যেগুলো ইউটিউব চ্যানেল,ফেইসবুক এবং স্থানীয় নিউজ চ্যানেল বা নিউজে দেখতে পাবে। এগুলো তুমার দেখে কিছুটা হলেও উপকৃত হবে এটা আমাদের প্রত্যাশা। এব্যপারে কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নাছির উদ্দিন বলেণ,১৭ মার্চ থেকে সারা দেশের মত কক্সবাজারের সব শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ এই অবস্থায় শিক্ষার্থীদের কিছুটা শিক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট রাখার জন্য জেলা প্রশাসক মহোদয় এই ভাল উদ্দোগ নিয়েছে। এই উদ্দোগের মাধ্যমে কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় এবং কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের দিয়ে ইতি মধ্যে ৩৬টি ক্লাস আমরা রেকর্ডিং করেছি। এর মধ্যে ২৭ টি প্রচার করার জন্য উপযুক্ত করা হয়েছে। আর ৮ম,৯ম ১০ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের পাঠ্য সূচি থেকে এই ক্লাস গুলো করা হয়েছে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) এর নেতৃত্ব আমরা এই কাজ গুলো করছি। যা ইতি মধ্যে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নিজস্ব ফেইসবুক পেইজে শেয়ার করেছেন। আমি মনে করি এই ডিজিটাল বাংলাদেশেরএকটি অন্যতম সফলতা। এ ব্যপারে কক্সবাজার সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর এম এ বারী বলেণ,এটা অস্বাধারণ পদ্ধতি। এটা সময়োপযুগি পদক্ষেপ এর ফলে শিক্ষার্থীরা কিছুটা হলেও বই মুখি হবে এবং উপকৃত হবে। আমি মনে অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্টানেরও এটা পদ্ধতি অনুসরণ করা দরকার। এব্যপারে কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাম মোহন সেন বলেণ,কক্সবাজার যেহেতু শিক্ষায় একটু অন্য জেলার চেয়ে পিছিয়ে তার উপর বন্ধে ঘরে লেখাপড়ার সবার ভাল পরিবেশ না থাকতে পারে। আবার স্কুলে কখন খুলবে তাও বুঝা যাচ্ছেনা সে কারনে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের এই উদ্দোগ অভূতপূর্ব। এতে শিক্ষার্থীরা লেখাপড়ার সাথে কিছুটা হলেও একিভূত হবে।এ ব্যপারে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বলেণ,বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারনে সব কিছুতে স্থবিরতা বিরাজ করছে কিন্তু শিক্ষায় কখনো স্থবিরতা থাকা ঠিকনা তাই শিক্ষার্থীদের বই মুখি করতে আমাদের এই উদ্দোগ। আপাতত ৮ম থেকে ১০ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের ডিজিটাল কন্টেন্টে ক্লাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে পরবর্তীতে সবার জন্য করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT