চিহ্নিত অপরাধীর দোকানে বিট পুলিশ অফিস : জনমনে আতংক

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২০
  • 102 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

বার্তা পরিবেশক
শহরের চিহ্নিত অপরাধী নারী কেলেংকারী,নাশকতা মামলা সহ বহু অপকর্মের হুতার দোকানে বিট পুলিশিং কার্যালয় করায় ফুসে উঠেছে স্থানীয় জনগন। এতে সেই চিহ্নিত অপরাধী আরো বেপরোয়া হয়ে সাধারণ মানুষকে হয়রানী করে পুলিশের সুনাম ক্ষুন্য করবে বলে জানান স্থানীয়রা। তাই দ্রæত ৭ নং ওয়ার্ডের কোন নিরপেক্ষ এবং সবার জন্য গ্রহনযোগ্য স্থানে বিট পুলিশিং কার্যালয় করার দাবীতে জেলা পুলিশ সুপারকে লিখিত আবেদন করেছেন ৭ নং ওয়ার্ডের সর্বস্থরের জনগন।
জানা গেছে,কক্সবাজারে বিট পুলিশ কার্যক্রমের অংশ হিসাবে পৌর এলাকার ৭ নং ওয়ার্ডের বিট পুলিশিং অফিস করা হয়েছে এলাকার বহু নারী কেলেংকারী,এলাকাবাসীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করার জন্য বিখ্যাত এবং নাশকতা মামলার আসামী মোঃ কায়েস এর দোকানে। মাত্র ১০ বর্গ ফুটের সেই দোকানে কিভাবে বিট পুলিশিং অফিস হতে পারে ? এছাড়া মোঃ কালুর ছেলে কায়েসের স্থায়ী ঠিকানা চকরিয়া উপজেলার রংমহল এলাকায় সে কিছুদিন আগে এখানে সাবেক এক পুলিশ কর্মকর্তার ক্ষমতা ব্যবহার করে সেই জমি দখল করেছে সেখানে বর্তমানে দোকান করেছে। পরে এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে তার ক্ষমতার উৎস পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলী করা হয়। বিগত জাতীয় নির্বাচনে স্থানীয় আওয়ামীলীগ অফিসে অগ্নি সংযোগ করা সহ কয়েক জন নারীর সাথে অবৈধ সম্পর্ক করে তাদের সভ্রমহানী করা পরে তাদের সংসার ভাঙ্গার অন্যতম হুতা এই কায়েস। সে সব সময় নিজেকে বড় বড় পুলিশ কর্মকর্তাদের আত্বীয় পরিচয় দিয়ে এলাকায় অনেক মানুষকে মিথ্যা মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করেছে। তাই বর্তমানে বিট পুলিশিং অফিসটি তার দোকানে হলে সে পুলিশকে ব্যবহার করে সাধারণ মানুষকে হয়রানী করবে এই আশংকা করছে স্থানীয়রা। ইতি মধ্যে কায়েস বিভিন্ন দোকানে বসে প্রচার করছে সব পুলিশ তার কথামত চলে বিট পুলিশ অফিস হলে সবাইকে দেখে নেবে। তাই কায়েসের দোকানে বিট পুলিশ অফিস না করতে জেলা পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত আবেদন করেছে পাহাড়তলীর কয়েকশত নারী পুরুষ। এ ব্যপারে স্থানীয় সমাজ সেবক মোবারক আহামদ,জাফর আলম সহ অনেকে বলেন,কায়েস একজন চিহ্নিত প্রতারক এবং অপরাধী তার দোকানে পুলিশ অফিস হলে সাধারণ মানুষের জন্য ক্ষতি হবে তাই কোন নিরপেক্ষ বা সবার জন্য উপকারে আসে এমন জায়গায় অফিস করতে হবে। ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি জাফর আলম বলেন,বর্তমানেও এক নারীকে নিয়ে উধাও হয়ে গেছে এমন বিচার চলছে। তার মধ্যে কায়েসের নিজস্ব মার্কেটে পুলিশ অফিস হলে মারাত্বক অসুবিধা হবে সে পুলিশকে বিভ্রান্ত করতে পারে। এছাড়া তার দোকানে কোন স্থানীয় মানুষ যাবে না। তাই সেখান থেকে বিট পুলিশ অফিস সরিয়ে নেওয়া জোর দাবী জানাচ্ছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT