শিরোনাম :
স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে জেলা আনসারও ভিডিপি’র বর্ণাঢ্য পতাকা র‌্যালী অনুষ্ঠিত ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়াতে ইসলামপুরে তরুনীর আত্মহত্যা ঈদগাঁও রাবার ড্রাম পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির নিবার্চন সম্পন্ন সড়ক দূর্ঘটনায় মহেশখালী থানার পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু গণপরিবহনে হাফ ভাড়া চান চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরাও কক্সবাজারে বিমান উড্ডয়নের সময় ধাক্কাতে ২ টি গরুর মৃত্যু : বড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা চকরিয়ায় ব্যালট পেপার বিনষ্টের অভিযোগে মামলা: প্রিজাইডিং অফিসার কারাগারে খুরুশকুল এলাকায় অভিযানে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-আটক ১ কস্তুরাঘাট সংলগ্ন বাকঁখালী নদী এখন প্রভাবশালীর ব্যাক্তিগত জমি বদরখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নৌকা প্রার্থীর ভাগ্নেকে পিটিয়ে হত্যা

ক্যাম্পে ইনচার্জকে গুলি, ১ মাসে ৩ জন স্থানীয়কে হত্যা : এখনো নিরব প্রশাসন

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, মে ২৯, ২০২০
  • 452 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

মাহাবুবুর রহমান.
কক্সবাজারে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের অপরাধ প্রবণতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। ২৮ মে কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জ খলিলুর রহমানের উপর রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী হাফেজ জালাল কর্তৃক হামলা গুলি বর্ষণ করায় রোহিঙ্গাদের অপরাধ নিয়ে নতুন করে আলোচনা করছে স্থানীয়রা। সচেতন মহলের দাবী দ্রæত কঠোর ভাবে রোহিঙ্গাদের দমন করা না গেলে পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাবে। এছাড়া গত ১ মাসে ৩ জন স্থানীয়কে অপহরণ করে হত্যার ঘটনার রেশ এখনো কাটেনি। আবার সে সব রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের এখনো গ্রেফতার বা আইনের আওতায় আনা যায়নি। তাই ক্ষোব্ধ স্থানীয়রা। তাদের দাবী এর পরে আর কিসের জন্য অপেক্ষা করছে বাংলাদেশ সরকার।তাই দ্রæত জোর পূর্বক হলেও রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবীজানান কক্সবাজারের মানুষ।
এছাড়া গত ১ বছরে এই সংখ্যা ১ ডজনের কম নয় বলে জানান সংশ্লিষ্ট্যরা। এদিকে ক্যাম্পের পার্শবর্তি জায়গায় রোহিঙ্গাদের অত্যাচারে চরম দূর্বিসহ জীবন যাপন করছে বলে জানান স্থানীয় বাসিন্দারা।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে গত ২৯ এপ্রিলের পর থেকে টেকনাফ থেকে ৩জন স্থানীয় বাসিন্দাকে অপহরণ করে মুক্তিপনের টাকার জন্য হত্যা করেছে রোহিঙ্গারা। রোহিঙ্গাদের হাতে নিহতরা হলো শাহেদ,আকতার, এবং সবশেষ শাহ মোহাম্মদ। তারা সবাই হোয়াইক্যং ইউনিয়নের বাসিন্দা। রোহিঙ্গা সশস্ত্র ডাকাত দলে অস্ত্রের মুখে স্থানীয়দের অপহরণ করে মুক্তির পণের টাকার জন্য চাপ দেয় পরে মুক্তির মুক্তিপণ পেলেও তাদে হত্যা করে গভীর জঙ্গলে মাটি চাপা দেয়। কক্সবাজার কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক তোফায়েল আহামদ বলেণ, ১ মাসে ৩ জন স্থানীয়কে অপহরণ করে হত্যা করেছে রোহিঙ্গারা এছাড়া গত বছর যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক বাড়ি থেকে নিয়ে গিয়ে হত্যা করেছিল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা। এছাড়া অনেক বিষয় প্রকাশ ও হয়নি আমার মতে গত ১ বছরে কমপক্ষে ১ ডজন মানুষকে হত্যা করেছে তারা। তিনি জানান এটা খুবই অশুভ লক্ষন। সময় থাকতে তাদের কঠোর ভাবে দমন করা না গেলে ভবিষ্যতে রোহিঙ্গারা আর্ন্তজাতিক সন্ত্রাসী হয়ে আমাদের জাতীয় স্বার্থে ক্ষতি করবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT