শিরোনাম :
টেকনাফে পুলিশের উপর হামলাকরে আসামী ছিনতাই : ইউপি সদস্য আটক ফের অস্ট্রেলিয়াকে হারাল টাইগাররা প্রযোজক রাজের বাসায় র‍্যাবের অভিযান ঘর নদীতে পড়ে যাওয়ার চিন্তায় ঘুমাতে পারছেনা চাকমারকুল ইউপির ৩ গ্রামের মানুষ রামুতে অসহায়দের মানবিক সহায়তা দিয়েছে সুশাসনের জন্য নাগরিক ‘সুজন’ দর্জি দোকানের কর্মচারীথেকে নেতা মনির : ৪ দিনের রিমান্ডে পরীমনির বাসায় অভিযান সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে : র‌্যাব বৌভাতে যাওয়ার সময় বজ্রপাতে ১৭ বরযাত্রীর মৃত্যু প্রসাধনীর আড়ালে চকরিয়া কুরিয়ারে মিলল ৭০ লক্ষ টাকার ইয়াবা, পাচারকারী আটক সুজন জেলা কমিটির পক্ষ থেকে বন্যাদূর্গতদের মাঝে অর্থ সহায়তা প্রদান

কক্সবাজারকে লকডাউন ঘোষনাঃআদেশ অমান্য করলে কঠোর ব্যবস্থা

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, এপ্রিল ৮, ২০২০
  • 73 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

মাহাবুবুর রহমান.
কক্সবাজার জেলাকে আনুষ্টানিক ভাবে লকডাউন ঘোষনা করেছেন জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন। ৮ এপ্রিল বিকাল ৩ টার দিকে জেলা প্রশাসকের নিজস্ব ফেইসবুকে জনস্বার্থে কক্সবাজার জেলাকে লকডাউন ঘোষনা করেন তিনি। এতে তিনি মন্তব্য করেন এখন থেকে এ জেলায় আগমন বা বর্হিগমন করা যাবে না। আইন অমান্য করলে কঠোর ব্যবস্থা। এদিকে বিশ^ দূর্যোগ করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে সরকার প্রথম পর্যায়ে ২৫ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি ছুটি ঘোষনা করে সবাইকে ঘরে থাকার আহবান জানিয়েছেছিলেন। পরবর্তীতে এই করোনা আরো মহামারী আকার ধারন করায় সরকারি ছুটি ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। তবুও বেশির ভাগ মানুষ অযথা রাস্তা ঘাটে দেখা যাচ্ছে। এদিকে করোনা পরিস্থিতিরও ভয়াবহতা বাড়ছে। ৮ এপ্রিল সরকারি ঘোষনা মতে বাংলাদেশে করোনা রোগির সংখ্যা ২১৮ জন। এর মধ্যে মৃত্যু বরণ করছে ২০ জন। এই অবস্থায় জনগনকে বাধ্যতা মূলত ভাবে ঘরে থাকতে কক্সবাজারকে আনুষ্টানিক লকডাউন করায় সাধুবাদ জানিয়েছে সচেতন মহল।
এদিকে জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন মুঠোফোনে জানান,সরকারের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে কক্সবাজার বাসির নিরাপত্তার স্বার্থে এবং সকল নাগরিকের কথা চিন্তা করে কক্সবাজার জেলাকে আনুষ্টানিক লকডাউন ঘোষনা করেছি। তবে কার্যত ২৫ এপ্রিল থেকে অনানুষ্টানিক লকডাউন চলছে। তবে এখন থেকে বৃহত্তর স্বার্থে প্রশাসন কঠোর হবে বলে জানিয়ে তিনি বলেণ সরকার জনগনের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে। যে পরিমান ত্রাণ সরবরাহ করা হচ্ছে সেটা অতীতে কোন সময় করা হয়নি। এছাড়া ব্যাক্তি উদ্দোগেও বিপুল পরিমান ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এমনকি মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্য সহায়তা করা হচ্ছে। নিত্যপন্য হাতের নাগালে তরতরকারী থেকে শুরু করে চাল ডাল কোন কিছুর দাম বাড়েনি বরং মাছ,মুরগী ডিম অনেক কিছুর দাম কমেছে। তবুও কেন মানুষ ঘর থেকে বের হবে। সে জন্য আইনশৃংখলা নিয়ন্ত্রনের স্বার্থে কক্সবাজারকে আনুষ্টানিক লকডাউন করা হয়েছে। এ বিষয়ে কক্সবাজারের সিনিয়র আইনজীবি এড, মোহাম্মদ জাহাঙ্গির বলেন,দেশে করোনা পরিস্থিতি দিন দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে যেখানে ৭ এপ্রিল আক্রান্ত ছিল ৪১ জন আর ৮ এপ্রিল ৫৪ জন সেখানে বুঝতে হবে আমাদের বিপদ একেবারে কাছে চলে এসেছে। এই মুর্হুতে বাংলাদেশ কে বাচাঁতে আল্লাহর রহমত এবং সরকারের পক্ষে যা কিছু করা দরকার সেটা করতে হবে। তবেআমার দুঃখ হচ্ছে মানুষ কেন ঘরে না থেকে অযথা বাইরে যাচ্ছে। আসলে অনেকে বলে দরিদ্র মানুষ কাজ না করলে কিখাবে। আমার দেখা মতে ৪ বার ত্রান সহায়তা পেয়েছে ঘরে ১৫ দিনের খাদ্য মজুদ আছে তবুও বাইরে যাচ্ছে এমন মানুষও আছে। আসলে সচেতন না হলে আমাদের কি পরিনতি হয় একমাত্র আল্লাহ ভাল জানে। কক্সবাজার সিটি কলেজের অধ্যক্ষ ক্যাথিং অং বলেন,আমেরিকা,বটেন,চীন,ইতালি,স্পেন,ফ্রান্স পার্শবর্তি দেশ ভারত এগুলো আমাদের চেয়ে প্রযুক্তি এবং অর্থনৈতিক ভাবে অনেক এগিয়ে তারা যেখানে এই মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবেলা করতে হিমশিম খাচ্ছে সেখানে আমাদের যে কি করুন পরিনতি হবে সেটা এখনো মানুষ অনুধাবন করতে পারছেনা। তাই এই মুহুর্তে জেলা প্রশাসক যে কার্যত লকডাউন ঘোষনা করেছে যেটা যথাযত ভাবে পালন হউক এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT