শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চোরাই পণ্যের ব্যবসা জমজমাট কক্সবাজারের দুই পৌরসভা ও ১৪ ইউপিতে ভোট ২০ সেপ্টেম্বর রামু উপজেলা পরিষদের সৌন্দর্য্য নষ্ট করে দোকান বরাদ্ধের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ ঈদগাঁও বটতলী-ইসলামপুর বাজার সড়কের বেহাল দশা আইসক্রিম বিক্রেতা থেকে কোটিপতি রোহিঙ্গা জালাল : নেপথ্যে ইয়াবা ব্যবসা পৌর কাউন্সিলার জামশেদের স্ত্রী‘র ইন্তেকাল : সকাল ১০ টায় জানাযা উখিয়ায় বিদ্যুৎ পৃষ্টে একজনের মৃত্যু কক্সবাজারে বেড়াতে এসে অতিরিক্ত মদপানে চট্টগ্রাম ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু টেকনাফে নৌকা বিদ্রোহীদের জন্য কঠিন শাস্তি অপেক্ষা করছে; সাবরাং পথসভায় মেয়র মুজিব ৮ হাজার পিস ইয়াবা, যৌন উত্তেজক সিরাপ নগদ টাকা সহ আটক ১

ঈদগড়ে পুলিশ প্রত্যাহারে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, এপ্রিল ১১, ২০২১
  • 136 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোটার,ঈদগাঁও
রামুর পাহাড়ি এলাকা ঈদগড়ের জনগণের নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত ঈদগড় ক্যাম্পের পুলিশ সদস্যদের ৬ এপ্রিল রাতে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। এতে স্থানীয় লোকজনের মাঝে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে।
এমন পরিস্থিতিতে ঈদগড়-ঈদগাঁও সড়কের ঢালায় স্থানীয় চেযারম্যানের নেতৃত্বে প্রতিদিন সন্ধ্যায় পাহারা বসিয়ে ডাকাত প্রতিরোধের চেস্টা করা হচ্ছে। তবে দিনের বেলায় সড়কটি অরক্ষিত থাকছে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। পথচারীদের আশংকা, যেকোন মুহুর্তে ঈদগড়ে বসতবাড়ী ও সড়কে ডাকাতি অপহরণসহ অন্যান্য অপরাধ প্রবনতা বৃদ্ধি এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি হতে পারে।
একসময় ঈদগড় ইউনিয়নে সড়ক ও বসত বাড়িতে গণহারে ডাকাতি অপহরণ হত। এমনকি ডাকাতদল দিনদুপুরে ঈদগড় বাজারে হানা দিয়ে লুটপাট চালিয়ে দোকানপাট জ্বালিয়ে দিয়েছিল। পুলিশ সদস্য সুষম চাকমা, জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী জনি, দিনমজুর মোঃ কালু, মাস্টার নুরুচ্ছফা ও ডাঃ মহিউদ্দীনসহ বহু অসহায় মানুষকে ডাকাতের হাতে জীবন দিতে হয়েছে। ঈদগড়ের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি উন্নয়নের স্বার্থে সরকার তখন ঈদগড় পুলিশ ক্যাম্প স্হাপন করেছিল। সেই থেকে ডাকাতি অপহরণ কিছুটা কমে গিয়েছিল। কিন্তু আকস্মিকভাবে বিগত ৬ এপ্রিল রাতে পুলিশ ক্যাম্পটি প্রত্যহার করে নেওয়ায় সাধারন লোকজন আতংকিত হয়ে পড়েছে।ঈদগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফিরোজ আহাম্মদ ভুট্রোর নেতৃত্বে এলাকাবাসী বিগত ৮ এপ্রিল সন্ধ্যা থেকে রাত ৯/১০ টা পর্যন্ত প্রতিদিন ডাকাত প্রতিরোধ ঈদগড়-ঈদগাঁও সড়কের ঢালায় পালাক্রমে পাহারা শুরু করেছে।
চেয়ারম্যান ফিরোজ আহাম্মদ ভুট্রো ঈদগড় ইউনিয়নের ৩০ হাজার মানুষের জানমালের নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ ক্যাম্প পুণরায় স্হাপনের দাবী করেছেন।
ঈদগড় ক্যাম্পে পুলিশ না থাকলে যেকোন মুহুর্তে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতির আশংকা করছেন এলাকাবাসী।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT