শিরোনাম :

আবারো ন্যায় বিচারের বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন কক্সবাজার চেম্বারের ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ মোহাম্মদ আলী

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯
  • 52 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
আবারো ন্যায় বিচারের বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন কক্সবাজার চেম্বার অব কমার্সের ভাইস প্রেসিডেন্ট, সমাজসেবক ছৈয়দ মোহাম্মদ আলী। পিএমখালীর সাবেক মেম্বার সুলতান আহমদকে লাঞ্চনা করার অপরাধ প্রমানিত হওয়ায় নিজ ভাই নুরুল আবছারকে ছাড়েননি তিনি। সুলতান মেম্বার জানান, জমি বিরোধ নিয়ে আমার সাথে ছনখোলার নুরুন্নবীর মধ্যে দীর্ঘদিন বিরোধ চলছিল। বিরোধ সমাধানের কথা বলে আবছার আমার কাছ থেকে ১৬ হাজার টাকা গ্রহন করে এবং আরো টাকা চায়। আমি টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে চেরাংঘর বাজারে আমাকে প্রহার করে এবং ভরা বাজারে শার্টের কলার টেনে ছিঁড়ে ফেলে আবছার। বিষয়টি গতকাল বিকালে আমি স্বশরীরে সৈয়দ মোহাম্মদ আলী সাহেবকে জানালে তিনি তাৎক্ষনিকভাবে আমাকে সাথে নিয়ে পিএমখালী চেরাংঘর বাজারে উপস্থিত হয়ে সহোদর ভাই আবছারকে ধরে ফেলে। আমাকে যেভাবে লাঞ্চিত করা হয় ভরা বাজারে একই কায়দায় আপন ভাই অন্যায়কারি আবছারকে আমাকে দিয়ে লাঞ্চিত করা হয়। আমাকে যতটা কিল ঘুসি দিয়েছে শত শত মানুষের সামনে আমাকে দিয়ে তাকে মারতে বলে।আমাকে সবার সামনে যেভাবে প্রহার করে আমিও ন্যায় বিচারের স্বার্থে তাকে সেভাবে প্রহার করেছি। এভাবে ন্যায় বিচার পেয়ে আবেগ ধরে রাখতে পারিনি আমি। সুলতান মেম্বার জানান, আমার উপর অন্যায়ের যে বিচার সবার সামনে আলী সাহেব করেছেন তা সারা জীবন দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। আল্লাহ যেন প্রত্যেক বিচারকের অন্তরে এমন ন্যায়পরায়নতা এবং আদল প্রতিষ্ঠার তৌফিক দান করেন। এ সময় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ,সুশীল সমাজের লোকজনসহ শত শত লোক উপস্থিত ছিল। উল্লেখ্য পিএমখালীর কৃতি সন্তান সৈয়দ মোহাম্মদ আলী ইতোপূর্বে ন্যায় বিচারের আরো অনেক নজীর স্থাপন করেছেন যা অনেক সাধারন মানুষের দোয়া ও ভালাবাসা অর্জন করেছেন। তিনি তাঁর পরিচয় দিয়ে কেউ যদি বিচার বা শালিসের মাধ্যমে কাউকে হয়রানি করে এমনকি তাঁর আপন ভাইদের মধ্যে ও যদি কেউ কোন ধরনের অন্যায় বা বিচারের নামে টাকা দাবি করে সাথে সাথে মামলা অনুরোধ জানান। উল্লেখ্য অনেকে সৈয়দ মোহাম্মদ আলীর ব্যাপারে না জেনে বিরুপ ধারণা করে থাকেন। তিনি যে সাধারণ মানুষের আস্থা ও বিশ্বাসের অনন্য উদাহারণ তা তাঁকে কাছ থেকে না জানলে বা তাঁর সাথে না মিশলে কেউ ধারনা করতে পারবেনা। নিজের উদারতা, পরোপকারিতা এবং দানশীলতার কারনে সাধারণ মানুষ তাঁকে আজীবন মনে রাখবেন বলে স্থানীয় জনপ্রতিনিরা জানান। প্রচার বিমুখ এবং সদা ন্যায় পরায়নতার কারনে তাঁকে সাধারণ মানুষ বেশি শ্রদ্ধা করেন। ন্যায় বিচার ও গতকালের সার্বিক বিষয় জানার জন্য তাঁর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয় কিন্তু চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি মোবাইল ব্যবহার না করার কারনে বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT