শিরোনাম :
রামু উপজেলা পরিষদের সৌন্দর্য্য নষ্ট করে দোকান বরাদ্ধের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ ঈদগাঁও বটতলী-ইসলামপুর বাজার সড়কের বেহাল দশা আইসক্রিম বিক্রেতা থেকে কোটিপতি রোহিঙ্গা জালাল : নেপথ্যে ইয়াবা ব্যবসা পৌর কাউন্সিলার জামশেদের স্ত্রী‘র ইন্তেকাল : সকাল ১০ টায় জানাযা উখিয়ায় বিদ্যুৎ পৃষ্টে একজনের মৃত্যু কক্সবাজারে বেড়াতে এসে অতিরিক্ত মদপানে চট্টগ্রাম ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু টেকনাফে নৌকা বিদ্রোহীদের জন্য কঠিন শাস্তি অপেক্ষা করছে; সাবরাং পথসভায় মেয়র মুজিব ৮ হাজার পিস ইয়াবা, যৌন উত্তেজক সিরাপ নগদ টাকা সহ আটক ১ মহেশখালী পৌর বিএনপির সভাপতি বহিস্কার,কমিটি বাতিল করোনা:ছয় মাস পর দৈনিক শনাক্ত ৬ শতাংশের কম

অস্ত্র ও গুলিসহ ৯ রোহিঙ্গা ডাকাতকে আটক করেছে র‌্যাব

রির্পোটার:
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, অক্টোবর ৬, ২০২০
  • 243 বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

আবদুল্লাহ মনির,টেকনাফ
কক্সবাজারের টেকনাফে ধাওয়া করে ৯ জন রোহিঙ্গা ডাকাতকে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করেছে র‌্যাব ।
মঙ্গলবার সকালে টেকনাফের চাকমারকুল এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। র‌্যাব-১৫ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান জানান, গত কয়েকদিন ধরে উখিয়ার কুতুপালং ক্যা¤েপ গোলাগুলি ও সংঘর্ষ চলছিল। এতে গোলাগুলিতে ৩ জন রোহিঙ্গাও মারা যায়। এর প্রেক্ষিতে র‌্যাবের একটি দল অভিযান পরিচালনা করে।
তিনি আরও বলেন, অভিযান টের পেয়ে রোহিঙ্গা ডাকাতরা কুতুপালং ক্যা¤প থেকে পালিয়ে যাওয়ার
চেষ্টা করে। পরে র‌্যাব তাদেরকে ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে মঙ্গলবার সকাল তাদেরকে ধাওয়া করতে
করতে টেকনাফের চাকমারকুল পাহাড়ি এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। এসময় তাদের
কাছ থেকে দেশিয় তৈরি ৪ টি অস্ত্র, ২০ রাউন্ড ও কিছু কিরিচ উদ্ধার করা হয়।

এইসব সন্ত্রাসী বাহিনী গুলোর রয়েছে অত্যাধুনিক অস্ত্র শস্ত্র। রোহিঙ্গা শিবিরের পাশের পাহাড় গুলোতে
রয়েছে এদের আস্তাানা। সন্ধা নামলেই তারা পাহাড় থেকে নেমে এসে ক্যা¤প গুলোতে চালায় ত্রাসের
রাজত্ব। শোনা যায় মুর্হুমুহ গুলির শব্দ। আইনশৃংখলা বাহিনী অভিযানে গেলেই তারা পাহাড়ে
আÍগোপন করে। উখিয়া টেকনাফের ৩৪টি ক্যা¤েপ রয়েছে তাদের অদৃশ্য নিয়ন্ত্রণ। ডাকাত জকিরকে
গ্রেফতার করতে হেলিকপ্টার ও ড্রোন নিয়ে র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ন র‌্যাব বেশ কয়েকদফা
অভিযান চালালেও জকির অথবা হাকিম কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি এ পর্যন্ত। আবার এইসব
সন্ত্রাসী বাহিনীর কোন সদস্যকে আইন শৃংখলা বাহিনী আটক করলেও অদৃশ্য ক্ষমতার বলে
অল্পদিনেই তারা আইনের ফাঁক ফোকর গলে বেরিয়ে পড়ে পুনরায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড শুরুকরে।

স¤প্রতি টেকনাফের নয়াপাড়া-শালবাগান-লেদা ও জাদিমুড়া শিবিরকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে আরো
বেশ কয়েকটি উঠতি সন্ত্রাসী বাহিনী। এদের মধ্যে নয়াপাড়া শিবির কেন্দ্রিক সালমান শাহ বাহিনী
ইতিমধ্যে আতংক ছড়িয়েছে রোহিঙ্গা শিবিরে ও এর আশেপাশের এলাকায়। ইতিমধ্যে অনেকে তাদের
হামলার শিকার হয়েছে। এদের হাতেও রয়েছে নানা অস্ত্র-শস্ত্র। স্বশস্ত্র গ্রæপ গুলো কথায় কথায় নিজেদের
মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। আবার সাধারন রোহিঙ্গাদের উপরও চড়াও হয় এরা কোন কারন ছাড়াই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সাধারন রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের মতে এইসব উঠতি গ্রæপ গুলোকে এখনি
আইনের আওতায় আনতে না পারলে একসময় এরাও জকির, হাকিম কিংবা নুরুল আলমের মতো
বড় সন্ত্রাসীতে পরিণত হয়ে আনসার ক্যা¤প লুটের মতো ভয়াবহ ঘটনা ঘটিয়ে দিতে পারে। তাই
এদের বিরুদ্ধে জোরদার অভিযানের দাবী তাদের।

র‌্যাব-১৫ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান বলেন,আটক ৯ জনই রোহিঙ্গা ডাকাত। তাদেরকে আইনী প্রক্রিয়া শেষে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এবং আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এই বিষয়ে আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 cox71.com
Developed by WebArt IT